হাওড়াঃ  ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত। আর যার জেরে আজ সোমবার ঈদের দিনেও হাওড়ায় বন্ধ রয়েছে খাবার সরবরাহকারী অ্যাপ জ্যোমেটোর ডেলিভারি পরিষেবা। বেশ কয়েক দফা দাবিতে ওই বেসরকারি কোম্পানির ফুড ডেলিভারি কর্মীরা গত সপ্তাহ থেকে হাওড়ায় কর্মবিরতি শুরু করেছেন।

হাওড়ার গোলাবাড়ি থানা এলাকায় একটি বেসরকারি ইংরেজি মাধ্যম স্কুলের সামনে গত শনিবার তারা কাজ বন্ধ রেখে শ্লোগানও দেন। বেতন বৃদ্ধি সহ বিভিন্ন দাবিতে সরব হন তারা। অনির্দিষ্টকালের জন্য কর্মবিরতির হুমকি দিয়েছেন ওই ডেলিভারী কর্মীরা। আর সে কারণে আজ সোমবার বন্ধ সমস্ত খাবার সরবরাহ।

কোম্পানির বিরুদ্ধে ফুড ডেলিভারি কর্মীদের অভিযোগ, তাদের ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করা হচ্ছে। কোম্পানির নতুন নিয়ম কোনও ভাবেই কোনও অর্ডার ফেরানো যাবে না। এতে অনেক ক্ষেত্রেই তাদের সমস্যা তৈরি হচ্ছে। এদের অভিযোগ, কোম্পানি তাদের পিএফ, গ্র‍্যাচুইটি কিছুই দিচ্ছে না। কাউকে কোনও বৈধ পরিচয়পত্রও দিচ্ছে না বলেও চাঞ্চল্যকর অভিযোগ কর্মীদের। এমনকি নূন্যতম মাস মাইনেও তারা পাচ্ছেন না বলে অভিযোগ তাঁদের। যখন কোম্পানি চালু হয়েছিল তাদের খাবার পৌঁছে দেওয়ার জন্য যে বিশেষ ভাতা ছিল সেই ভাতা কমে এখন কমে দাঁড়িয়েছে। এতে তাদের পেটে টান পড়ছে।

হাওড়ায় ওই সংস্থার রয়েছে দুইটি জোন। একটি হাওড়া ও অন্যটি শিবপুর। হাওড়া জোনে রয়েছে হাওড়া ময়দান, সালকিয়া, বেলুড় ও বালী। শিবপুর জোনে রয়েছে শিবপুর, মন্দিরতলা, কদমতলা, রামরাজাতলা, বাকসাড়া প্রভৃতি এলাকা। প্রত্যেক জোনেই কম বেশী ২৫০ জন করে ‘ডেলিভারি রাইডার’ রয়েছে ওই সংস্থার। মূলত হাওড়া জোনেই বন্ধ রয়েছে পরিষেবা বলে জানান নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ডেলিভারি রাইডার।

এছাড়াও কলকাতা, হুগলির কয়েকটি জায়গায় বন্ধ রয়েছে পরিষেবা। মূলত ক্রমঃহ্রাসমান বেতন কাঠমোর ফলে কমেছে আয়। আগে যেখানে একটি ডেলিভারিতে মিলত ১০০ টাকা এখন তা কমতে কমতে এসে দাঁড়িয়েছে ২৫ টাকায়। এছাড়াও ডেলিভারি কর্মীদের অভিযোগ, তাঁদের ইচ্ছার বিরুদ্ধে অপছন্দের মাংস ডেলিভারি করতে বাধ্য করছে তাদের সংস্থা। তাদের কথাও শোনা হচ্ছেনা।

গত সপ্তাহ থেকেই বন্ধ রয়েছে এই পরিষেবা বলে ডেলিভারি রাইডারদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। এছাড়াও জীবন বিমা, প্রফিডেন্ট ফান্ড, চিকিৎসা বিমা প্রভৃতি সামাজিক সুরক্ষার দাবি জানিয়েছেন ডেলিভারি রাইডাররা। এই প্রসঙ্গে আন্দোলনকারী বি. ভার্মা বলেন, কম মাইনেতেই কাজ না করলে ছাঁটাই করার হুমকি দিচ্ছে ম্যানেজমেন্ট। বিষয়টি নিয়ে হাওড়া সিটি পুলিশের মধ্যস্থতায় আগামী ১৬ অগস্ট সংস্থার আধিকারিকদের সাথে বৈঠকে বসবেন আন্দোলনকারী ডেলিভারি রাইডারদের এক প্রতিনিধি দল। সেখানে রফাসূত্র পাওয়া না গেলে আগামীদিনে লাগাতার আন্দোলন শুরু হবে।

উল্লেখ্য, অপছন্দের মাংস নিয়ে যেতে আপত্তির কথা জানিয়ে এবং বিভিন্ন দাবিতে কর্মবিরতির ডাক দিয়েছেন ওই খাবার সরবরাহকারী অ্যাপ এর কর্মীরা। সম্প্রতি এক ডেলিভারি বয়ের হাত থেকে এক গ্রাহকের খাবার নিতে অস্বীকার করায় বিতর্ক সৃষ্টি হয়। সোস্যাল মিডিয়ায় বিতর্কের ঝড় ওঠে। তবে, খাবার সরবরাহকারী সংস্থাটি ধর্ম নিয়ে জনৈক ব্যক্তির আপত্তির বিরুদ্ধে সম্প্রতি রুখে দাঁড়িয়ে ইতিবাচক পদক্ষেপ করে। তবে, হাওড়া সহ অন্যান্য জায়গায় কবে অচলাবস্থা কাটবে তানিয়ে কোনও সদুত্তর মেলেনি।