মুম্বইঃ ক্রমশ বাড়ছে করোনার সংক্রমণ। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে লকডাউনও। চতুর্থ দফার লকডাউনের দিকে এগোচ্ছে দেশ। প্রায় দুমাস ধরে স্তব্ধ গোটা দেশ। বন্ধ সমস্ত রকম ব্যবসা-বাণিজ্য থেকে অফিস। এই পরিস্থিতি টলমল দেশের অর্থনীতি। রাজ্যগুলির ভাড়ার প্রায় শূন্য। সংস্থাগুলির অবস্থাও ধীরে ধীরে কমতে শুরু করেছে। এই পরিস্থিতিতে কর্মী ছাঁটাইয়ের পথেই হাঁটছে বিভিন্ন সংস্থা।

যাতে কারোর চাকরি না যায়, সরকারের তরফে এই বিষয়ে আবেদন জানানো হয়েছিল। কিন্তু ক্রমশ ভাড়ার শূন্য হচ্ছে। তাই এবার কোপ পড়তে চলেছে কর্মীদের উপর। যেমন কর্মী ছাঁটাইয়ের পথে ফুড ডেলিভারি সংস্থা Zomato। সংস্থার তরফে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যে, ১৩ শতাংশ কর্মী Zomato ছাঁটতে চলেছে।

এখানেই শেষ নয়, যে সমস্ত কর্মীরা কাজ করবে তাঁদের বেতন ৫০ শতাংশ কাঁটা হবে বলে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। শুক্রবার সকালেই কর্মীদের উদ্দেশে একটি নোট লেখেন Zomato-র প্রতিষ্ঠাতা এবং সিইও দীপিন্দর গোয়েল। সেখানে তিনি এই বিষয়ে বিস্তারিত লিখেছেন।

সেখানে তিনি বলেছেন, বিগত কয়েক মাস অনেক কিছু বদলে গিয়েছে। ব্যবসার ধরণও বদলে গিয়েছে। ম্যানেজমেন্ট যেখানে Zomato-কে আরও কেন্দ্রীভূত করতে চাইছে, সেখানে দেখা যাচ্ছে অনেক কর্মীরই বেশি কাজ নেই। এরপরেই দীপিন্দর কার্যত বোমা ফাটান। কর্মীদের ধন্যবাদ জানিয়ে সেই চিঠিতে লেখেন, আমরা আমাদের সকল কর্মীদের কাছে চ্যালেঞ্জমূলক কাজের পরিবেশ সৃষ্টি করার জন্য ঋণী থাকব চিরকাল। কিন্তু এরপর আমরা আর ১৩ শতাংশ কর্মীকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারব না।

এই বিস্ফোরক নোটের পরেই তীব্র চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে সংস্থার কর্মীদের মধ্যেও। তৈরি হয়েছে আতঙ্কও। কার চাকরি যাবে তা নিয়েই এখন ভীত কর্মীরা। দীপিন্দর গোয়েল জানিয়েছেন, যাঁরা কাজ হারাতে চলেছেন পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে একটি Zoom কল তাঁদের সামনে হাজির হতে পারে। আর যাঁদের কাজ থাকছে, ৬ ঘণ্টার মধ্যেই তাঁরা hr@zomato.com -এর পক্ষ থেকে একটি ইমেল পাবেন। কর্মী ছাঁটাইয়ের দলে যে তাঁরা নেই, সেই বিষয়টিই নিশ্চিত করতে আসবে এই ইমেল। তবে কর্মী ছাঁটাই হলেও কিছুটা হলেও মানবিক হচ্ছে সংস্থা। জানা গিয়েছে, যারা কাজ হারাচ্ছেন তাঁরা পরবর্তী ৬ মাস বাড়িতে বসেই বেতন পাবেন।

যদিও বেতনের পুরোটা নয়। অর্ধেট টাকা পাবেন। তিনি যদি এই সময়সীমার মধ্যে অন্য কোনও সংস্থাতে যোগও দেন তাহলেও এই অর্ধেক বেতন দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে। পাশাপাশি যারা সংস্থার ডিরেক্ট পে রোলে নেই অর্থাৎ কোনও এজেন্সির মাধ্যমে Zomato-র হয়ে কাজ করেন তাঁরা সেই সব এজেন্সির থেকেই চাকরি যাওয়ার পরবর্তী ২ মাস বেতন পাবেন। আর সেই এজেন্সিগুলিকে টাকা দেবে Zomato-ই। এছাড়াও যাদের চাকরি যাচ্ছে তাঁদের আরও কিছু সুবিধা দেবে সংস্থা। যেমন জীবন বিমা, ল্যাপটপ সহ আরও কিছু।

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা