মুম্বই: সদ্য মুক্তি পেয়েছে শাহরুখ খানের মোস্ট ওয়ান্টেড ছবি ‘জিরো’র ট্রেলার৷ একদিনের মধ্যেই ভিউজ ছাড়িয়েছে একচল্লিশ মিলিয়ন৷ শাহরুখের কেরিয়ার গ্রাফের সবথেকে ইউনিক ছবি৷ যার জন্য সারা বছর অপেক্ষা করেছিলেন এসআরকে-ভক্তরা৷ ট্রেলার মুক্তির চব্বিশ ঘন্টা পেরোতে না পেরোতেই মিমের ময়দানে নামল ‘জিরো’৷ আজকাল ছবি, ভিডিও, লেখা, খবর সবকিছু নিয়েই ট্রোল করা মিম তৈরি করা ট্রোলারদের দায়িত্ব দাঁড়িয়েছে রীতিমত৷ যদিও সে দায়িত্ব তারা নিজেই নিজেদের কাঁধে তুলে নিয়েছে৷

তেমনই ‘জিরো’ ছবির ট্রেলার রিলিজ করার পরই অসংখ্য মিমে ভরে উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়া৷ কোথাও শাহরুখের চরিত্র বাউয়া সিংকে নিয়ে ঠাট্টা তো কখনও ক্যাটরিনা, দীপিকার কস্টিউম নিয়ে তামাশা৷ তিন মিনিট চোদ্দ সেকেন্ডের ভিডিও, নেটিজেনরদের অগণিত কনটেন্ট দিয়ে ফেলেছে মিম তৈরি করার জন্য৷ যেমন একটি মিম শাহরুখের, “লেনা হ্যায় হামে” সংলাপটি নিয়ে৷ এই ডায়লগটি বহু টপিকের সঙ্গে মিলিয়ে জোক তৈরি হয়েছে৷

অন্যদিকে অনুষ্কা শর্মার, “গাওয়ার পসন্দ হ্যায় মুঝে” ডায়লগটির সঙ্গে ট্রেন্ডিংয়ের কয়েকটি টপিক জুড়ে দেওয়া হয়েছে৷ যদিও এই প্রতিটি মিমে শাহরুখ, ক্যাটরিনা কিংবা অনুষ্কার ভক্তদের একেবারেই কোনও সমস্যা নেই৷ বরং তারাও বাকিদের মতো বেশ এনজয় করছে৷ এর আগেও ‘ঠগস অফ হিন্দোস্তান’র ট্রেলারের মুক্তির দিনই ট্রোল তৈরি হয়েছিল৷ আমির খানের সোজ পোশাক, অমিতাভের অ্যাকশন সিক্যুয়েন্স প্রভৃতি নিয়ে ট্রোলের অন্ত ছিল না ট্যুইটার, ফেসবুকে৷

প্রসঙ্গত, ছবির চরিত্র বাউয়া সিংয়ের জীবনের ওঠাপড়ার কাহিনি নিয়েই সিনে পর্দায় এক অন্য ধরণের ছবি তুলে ধরতে চলেছে পরিচালক এল আনন্দ এল রাই৷ মিরাটের বাসিন্দা বাউয়া৷ এক অভিনেত্রী (ক্যাটরিনা) এবং একজন প্রতিবন্ধী (অনুষ্কা)র সঙ্গে সাক্ষাতের পর আমূল পরিবর্তন আসে বাউয়ার জীবনে৷ জানা যাচ্ছে ছবিতে গেস্ট অ্যাপিয়ারেন্সে দেখা যাবে, সলমন খান, আলিয়া ভাট, রানি মুখোপাধ্যায়, করিশ্মা কাপুর সহ অনেকে৷

 

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।