ইসলামাবাদ: ভুয়ো ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ও অর্থ পাচারের অভিযোগের তদন্তে প্রাক্তন পাক রাষ্ট্রপতি আসিফ আলি জারদারিকে ১৪ দিনের জন্যে নিজেদের কাছে রেখে জেরা করতে চান তদন্তকারীরা৷ সেই কারণে মঙ্গলবার তাঁকে ফের আদালতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে৷ তার আগে মেডিকেল টেস্ট করানো হয় জারদারির৷ জানি গিয়েছে তিনি সুস্থ৷ এই রিপোর্ট পাওয়ার পরেই তাঁকে হেফাজতে নিয়ে তৎপর হয়েছে পাক ন্যাশনাল অ্যাকাউন্টেবিলিটি ব্যুরো (ন্যাব)ে৷

ডন, পাকিস্তান টুডে, জিও নিউজ সহ বিভিন্ন পাক সংবাদমাধ্যম জানাচ্ছে, জারদারিকে গ্রেফতারের পর থেকেই প্রবল আলোড়ন ছড়িয়েছ দেশজুড়ে৷ যেহেতু সিন্ধ প্রদেশে পাকিস্তান পিপল পার্টি (পিপিপি) বিশেষ শক্তিশালী তাই সেখানে বিক্ষোভ ঘিরে পরিস্থিতি রীতিমতো উত্তপ্ত৷ সোমবার থেকে চলা বিক্ষোভে পিপিপি সমর্থকরা মঙ্গলবারেও বিভিন্ন রাস্তার গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে অবস্থান নিয়েছে৷ জ্বলছে টায়ার৷ শুরু হয়েছে অবরোধ৷

পড়ুন:   ছাত্র নেতাদের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে বিএনপি কেন্দ্রীয় অফিসে ফের তালা

মঙ্গলবারের পর থেকে সিন্ধ প্রদেশের রাজধানী শহর করাচি জুড়ে আরও বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়বে বলেই আশঙ্কা৷ যদিও স্থানীয় প্রশাসন ও সরকারের তরফে নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে৷ তবে উত্তেজিত পিপিপি সমর্থকরাও অবস্থান থেকে সরে আসায় অনড়৷ পিপিপি সুপ্রিমো নেতা তথা বেনজির ভু্ট্টো ও জারদারির পুত্র বিলাবল তাঁর পক্ষে থেকে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখার অনুরোধ করেছেন৷ কিন্তু উত্তেজিত পিপিপি নেতা-কর্মীদের নিয়ন্ত্রণ করা অসম্ভব জানাচ্ছেন দলেরই একাধিক নেতা৷

অন্যদিকে পাক জাতীয় সংসদের প্রধান বিরোধী দল পিএমএল(নওয়াজ) প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট জারদারির গ্রেফতার নিয়ে প্রশ্ন তোলে৷ একে করে বিরোধী শক্তি একজোট হওয়ার দিকেই যাচ্ছে বলে মরছেন বিশেষজ্ঞরা৷