নয়াদিল্লি: ফেভারিট হিসেবে বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করেও সেমিফাইনাল হেরে বিশ্বকাপ থেকে বিদায়। দেশের ক্রিকেট অনুরাগীদের মতোই কোহলিদের বিদায়ে হতাশ হয়েছিলেন বিশ্বকাপ চলাকালীনই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সার্কিট থেকে প্রাক্তন হওয়া যুবরাজ সিং। আর বিশ্বকাপে এই ব্যর্থতার জন্য টিম ম্যানেজমেন্টকেই দায়ী করলেন ২০১১ বিশ্বকাপ জয়ের নায়ক।

বিশ্বকাপের জয়ের জন্য ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্টের পরিকল্পনা ‘সম্পূর্ণ ভুল’ ছিল বলে জানিয়েছেন যুবরাজ। একইসঙ্গে বিশ্বকাপের দল নির্বাচন নিয়ে ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন জাতীয় দলের প্রাক্তন এই গুরুত্বপূর্ণ অল-রাউন্ডার। ‘বিশ্বকাপে অম্বাতি রায়ডুর পরিবর্ত হিসেবে ওরা বেছে নিয়েছিল বিজয় শংকরকে। এরপর তাঁর চোটের জন্য উড়িয়ে আনা হয় ঋষভ পন্তকে। আমার ওই দুই ক্রিকেটারের বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগ নেই কিন্তু মাত্র পাঁচটি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলা দু’জন ক্রিকেটারের কাছ থেকে কেউ কী করে বড় ম্যাচ জেতানোর প্রত্যাশা করে?’ প্রশ্ন তুলেছেন যুবি।

ছয় ছক্কার মালিক আরও বলেছেন, ‘টিম ম্যানেজমেন্টের পরিকল্পনায় চার নম্বরের মত গুরুত্বপূর্ণ পজিশনের দায়ভার যাঁর কাঁধে ছিল তাঁর ওয়ান-ডে’তে সর্বোচ্চ রান ছিল ৪৮। তাই আমার মতে স্ট্র্যাটেজিতে যথেষ্ট গলদ ছিল। ওরা ভেবেছিল রোহিত-কোহলি দারুণ ফর্মে রয়েছে তাই কোনও সমস্যা হবে না। কিন্তু দলের জয় দু’জনের উপর নির্ভর করে না। আপনি যদি ২০০৩, ২০১১, ২০১৫ অস্ট্রেলিয়া দলের দিকে ফিরে তাকান, তবে দেখবেন ওদের দলে সেট ব্যাটসম্যান ছিল।’

পাশাপাশি ২০১৯ বিশ্বকাপে ভারতীয় দলে দীনেশ কার্তিকের গ্রহণযোগ্যতা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন ২০১১ বিশ্বকাপের ম্যান অফ দ্য টুর্নামেন্ট। বছর আটত্রিশের যুবরাজের কথায়, দল নির্বাচনের বিষয়ে ম্যানেজমেন্ট এতটাই অপেশাদারিত্বের পরিচয় দিয়েছে যে কোনও ম্যাচ না খেলিয়ে দীনেশ কার্তিককে নামিয়ে দেওয়া হয় নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে সেমিফাইনালে। যুবরাজ বলেছেন, ‘থিঙ্ক-ট্যাঙ্ক ঠিক কী ভেবে সিদ্ধান্তটা নিয়েছিল? গোটা টুর্নামেন্টে না খেলা কোন ক্রিকেটার কীভাবে সেমিফাইনালের মতো বড় ম্যাচে সুযোগ পায় এবং এমএস ধোনির মত একজন ব্যাটসম্যানকে সাত নম্বরে ব্যাট করতে হয়।’

বিশ্বকাপের আগে একটিমাত্র সিরিজ দিয়ে রায়ডুকে বিচার করার ঘটনায় ভীষণই হতাশ যুবরাজ। সেই বিষয়টিও উত্থাপন করেছেন এই বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যান। যুবরাজকে সমর্থন জানিয়ে প্রাক্তন সতীর্থের পাশে দাঁড়িয়েছেন টার্বুনেটর হরভজন সিং। ২০১১ বিশ্বকাপে খেলা ভারতীয় দলের একাধিক ক্রিকেটার ২০১৫ বিশ্বকাপ দলে সুযোগ পাওয়ার দাবিদার ছিল বলে জানিয়েছেন ভাজ্জি। সে তালিকায় যুবরাজ এবং নিজেকে রাখার পাশাপাশি গৌতম গম্ভীরকেও রেখেছেন তিনি। কিন্তু কেন যে তাঁদের রাখা হয়েছিল না তার সদুত্তর তিনি পাননি বলে জানিয়েছেন হরভজন।

টেস্ট ক্রিকেটে প্রথম ভারতীয় বোলার হিসেবে হ্যাটট্রিকধারীর আরও সংযোজন, ‘ভারতীয় দলের হয়ে কখনও কোনও অবদান রেখে যাওয়া ক্রিকেটারদের যথাযোগ্য সম্মান পাওয়া উচিৎ। কিন্তু সাম্প্রতিককালে অবসর নেওয়া একাধিক ক্রিকেটার ম্যানেজমেন্টের উপর অসন্তুষ্ট হয়ে অবসর ঘোষণা করেছেন।