নয়াদিল্লি: বিশ্বকাপের মাঝেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে গুডবাই জানিয়েছেন যুবরাজ সিং৷ অবসরের সপ্তাহখানেকের মধ্যে বিদেশি টি-২০ লিগে খেলার জন্য ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের কাছে অনুমতি চাইলেন টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তন বাঁ-হাতি৷

বোর্ডের এক সিনিয়র কর্তা জানান, ‘বিদেশে কয়েকটি টি-২০ লিগে খেলার ইচ্ছেপ্রকাশ করেছে যুবরাজ৷ ফ্রিল্যান্স ক্রিকেটার হিসেবে বিদেশি টি-২০ লিগে খেলার আগে বোর্ডের কাছে মতামত জানতে চেয়েছে যুবি৷’

১০ জুন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর ঘোষণা করেন ২০১১ বিশ্বকাপের নায়ক৷ মুম্বইয়ে অবসর ঘোষণার সময়ই বিদেশি টি-২০ লিগে খেলার ইচ্ছের কথা জানিয়েছিলেন যুবরাজ৷ সেদিন যুবি বলেছিলেন, ‘আমি টি-২০ লিগে খেলতে চাই৷ এই বয়সে আমি মজাদার ক্রিকেট খেলতে পারি৷ কারণ আমি জীবনটা উপভোগ করতে চাই৷ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ও আইপিএলের মতো টুর্নামেন্টের চাপ নেওয়া আমার পক্ষে সম্ভব নয়৷’

প্রায় দু’শকের আন্তর্জাতিক কেরিয়ারে দেশের হয়ে ৪০টি টেস্ট, ৩০৪টি ওয়ান ডে এবং ৫৮টি আন্তর্জাতিক টি-২০ ম্যাচ খেলেছেন যুবি৷ ২০০৭ ও ২০১১ ভারতের দু’টি বিশ্বকাপ জয়ী দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন পঞ্জাবের এই বাঁ-হাতি৷ ২০০৭-এ মহেন্দ্র সিং ধোনির নেতৃত্বে প্রথম টি-২০ বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন দলে ছিলেন তিনি৷ শুধু তাই নয়, এই টুর্নামেন্টে ডারবানে ইংল্যান্ড পেসার স্টুয়ার্ট ব্রডকে এক ওভারে ৬টি ছক্কা মেরে ইতিহাস গড়েছিলেন যুবরাজ৷

দেশের জার্সিতে যুবরাজের সেরা পারফরম্যান্স ২০১১ বিশ্বকাপে৷ ধোনির নেতৃত্বে ৫০ ওভারের বিশ্বকাপ জেতে ভারত৷ এই বিশ্বকাপে ৩৬২ রান ও ১৫টি উইকেট নিয়ে ‘প্লেয়ার অফ দ্য টুর্নামেন্ট’ হয়েছিলেন যুবি৷ চার ম্যাচে সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কারও জিতেছিলেন টিম ইন্ডিয়ার এই বাঁ-হাতি৷

তবে শুধু ২২ গজে নয়, মাঠের বাইরেও কঠিন লড়াই করতে হয়েছে যুবরাজকে৷ ২০১১ বিশ্বকাপের ঠিক পরেই ক্যানসার ধরা পড়ে যুবরাজের৷ মার্কিন মুলুকে গিয়ে চিকিৎসা করিয়ে ফেরে মাঠে ফেরেন ‘মেন ইন ব্লু’র এই সৈনিক৷ ক্যানসার যুদ্ধে জয়ী হয়ে মাঠে ফিরে ফের নিজেকে প্রমাণ করেছিলেন টিম ইন্ডিয়ার এই বাঁ-হাতি৷ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে টি-২০ ম্যাচে ৩৫ বলে ৭৭ রানের ধামাকা ইনিংস খেলেন যুবি৷

১৯ বছরের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কেরিয়ারে ৩০৪টি ওয়ান ডে ম্যাচে ১৪টি সেঞ্চুরি ও ৫২টি হাফসেঞ্চুরি-সহ ৮৭০১ রান এবং ৪০টি টেস্টে তিনটি সেঞ্চুরি ও ১১টি হাফসেঞ্চুরি-সহ মোট ১৯০০ রান রয়েছে যুবির দখলে৷ এছাড়া দেশের হয়ে ৫৮টি টি-২০ ম্যাচে ৮টি হাফসেঞ্চুরি-সহ মোট ১১৭৭ রান এসেছে যুবির ব্যাট থেকে৷ অবসরোত্তর যুবিকে কুর্নিশ জানাতে ভুল করেননি টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তন সতীর্থরা৷