লন্ডন: অল ইংল্যান্ড ক্লাবে প্রথমবার মূলপর্বে নেমে প্রথম রাউন্ডেই বিদায় নিলেন য়ুকি ভামব্রি৷ সোমবার প্রথম রাউন্ডে ২ ঘণ্টা ৩৯ মিনিটে চার সেটের লড়াইয়ে (৬-২, ৩-৬, ৩-৬, ২-৬) হার মানেন ভারতের এক নম্বর তারকা৷

বছর পঁচিশের ভামব্রি প্রথম ১০০ থাকা এমন একজন প্লেয়ার, যিনি স্পনসর ছাড়ায় কোর্টে নেমেছিলেন৷ ইতালির কোয়ালিফায়ার থমাস ফ্যাবিয়ানোর বিরুদ্ধে প্রথম সেট জিতলেও পরের তিনটি সেট টানা হেরে উইম্বলডনকে বিদায় জানালেন ভামব্রি৷

ম্যাচের শুরুতেই দারুণ ফোরহ্যান্ডে আক্রমণাত্মক টেনিস খেলেন বিশ্বের ৮৫ নম্বর ভারতীয় খেলোয়াড়৷ কিন্তু পরের তিন সেটে আত্মসমপর্ণ করে উইম্বলডন থেকে বিদায় নেন ভামব্রি৷ ভারতের ডেভিস কাপ প্লেয়ার এদিন ৬১টি আনফোর্সড এরর করেন৷ আর প্রতিদ্বন্দ্বী ফ্যাবিয়ানোর সেখানে এরর হয় মাত্র ২০টি৷

এ নিয়ে মোট পাঁচবার গ্র্যান্ড স্ল্যামের মূলপর্বে খেলা ভামব্রির জন্য গলা ফাটান ভারতীয় দর্শকরা৷ কিন্তু তাঁর লড়াই থেমে যায়৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।