নয়াদিল্লি: অন্ধ্রপ্রদেশে চোখধাঁধানো সাফল্য পেয়েছেন ওয়াইএসআর কংগ্রেসের জগনমোহন রেড্ডি৷ রবিবার সেই সাফল্যের বার্তা নিয়ে নয়াদিল্লিতে এসে পোঁছলেন তিনি৷ দেখা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে৷ একে অপরকে জয়ের জন্য শুভেচ্ছা জানান এই দুই নেতা৷

নিজের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে আমন্ত্রণ জানান জগন মোহন৷ ভি বিজয় সাই রেড্ডির মত ওয়াইএসআর কংগ্রেসের অন্যান্য নেতারা উপস্থিত ছিলেন এই বৈঠকে৷ ফুলের তোড়া ও সাল দিয়ে মোদীকে শুভেচ্ছা জানান জগনমোহন৷

বৈঠক চলে বেশ কিছুক্ষণ৷ বৈঠক শেষে নয়াদিল্লির অন্ধ্র ভবনের উদ্দ্যেশ্যে রওনা দেন ওয়াইএসআর কংগ্রেস প্রধান৷ ৩০শে মে মোদীর শপথগ্রহণে অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে দেখা যেতে পারে জগন মোহনকেও৷

রবিবার মোদীর সঙ্গে জগনের বৈঠককে গুরুত্ব দিচ্ছে রাজনৈতিক মহল৷ প্রচারে কখনও বিজেপির বিরুদ্ধে কটুক্তি বা সমালোচনা করতে শোনা যায়নি জগন মোহনকে৷ বরং অন্ধ্রপ্রদেশকে বিশেষ রাজ্যের খেতাব দেওয়ার ব্যাপারে জগন বলেছিলেন যে এই সম্মান দেবে, তাকেই সমর্থন করবে ওয়াইএসআর কংগ্রেস৷

৩০শে মে নিজের শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাওকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন জগন বলে খবর৷ এদিন বিজয়ওয়াড়ায় ইন্দিরা গান্ধী মিউনিসিপ্যাল স্টেডিয়ামে জগন মোহনের শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান হবে৷

উল্লেখ্য, অন্ধ্রপ্রদেশে ওয়াইএসআর জগন রেড্ডির সাফল্য নজর কেড়েছে গোটা দেশের৷ জগন ঝড়ে কার্যত উড়ে গিয়েছেন চন্দ্রবাবু নাইডু৷ এবারের ভোটে প্রায় ক্লিন সুইপ করেছেন জগন৷ অন্ধ্রে বিজেপি সুবিধা করতে পারেনি৷ চন্দ্রবাবুর শেষ মুহুর্তের কিছু প্রকল্প ঘোষণাও ব্যর্থ হয়েছে৷

ওয়াইএসআর কংগ্রেসের প্রধান জগন মোহন রেড্ডি রাজ্যের ১৭৫ টি বিধানসভা আসনের ১৫২ টি আসনেই জয় পেয়েছেন৷ ২৫টি লোকসভা আসনের বেশিরভাগই নিজেদের দখলে রেখেছেন।

অন্ধ্রপ্রদেশে এবার ১৫ মাসের টার্গেট নিয়েছিলেন জগন৷ সরাসরি মানুষ বা ভোটারদের সঙ্গে কথা বলা ছিল তাঁদের মূল স্ট্র্যাটেজি৷ প্রচারের শ্লোগান ছিল রাভালি জগন, কাভালি জগন (আমরা জগনকে চাই, জগনকে জিততেই হবে)৷ তাঁর নির্বাচনী থিম সং ভাইরাল হয়৷ পেজ ভিউ ছিল ২.২৫ কোটি৷ ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে সাংগঠনিক ক্ষমতার অভাবে হারতে হয়েছিল জগনকে৷ তবে নিজের ক্ষমতা বুঝিয়ে ছিলেন তিনি৷ পেয়েছিলেন ৪৫.৪ শতাংশ ভোট৷ ঝুলিতে ছিল ৬৬টি আসন৷