স্টাফ রিপোর্টার, তমলুক: প্রেম দিবসে সকলে যখনে প্রিয়জনের সঙ্গে আনন্দে মাতোয়ারা, তখন কোলাঘাটের জিঞাদায় শোকের ছায়া। প্রেমিকার জন্য প্রাণ হারাল প্রেমিক। প্রেমে প্রতারিত হয়ে প্রেম দিবসের দিনেই আত্মঘাতী হল এক যুবক। ঘটনা কোলাঘাট থানার দক্ষিণ জিঞাদা গ্ৰামের। মৃতের নাম বিশ্বজিৎ ওঝা (২৫)৷

জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার ঘরের মধ্যে উদ্ধার হয় বিশ্বজিৎ-এর ঝুলন্ত দেহ। পরিবারের লোকেরা দরজা ভেঙে মৃতদেহ উদ্ধার করে৷ বাড়ির লোকেরা স্থানীয় চিকিৎসককে বাড়িতে নিয়ে আসেন৷ তিনি বিশ্বজিৎ-কে মৃত বলে ঘোষণা করেন৷ খবর পেয়ে দেহ উদ্ধারে আসে পুলিশ।

প্রণয় ঘটিত কারণে যুবক আত্মঘাতী হয়েছেন বলে জানিয়েছেন পাঁশকুড়া থানার ওসি অজিতকুমার ঝাঁ। অস্বাভাবিক মৃত্যু মামলা রুজু করে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, আরবের ওমানে একটি বেসরকারি সংস্থায় কর্মরত ছিল বিশ্বজিৎ। দুদিন আগে বাড়ি ফিরেছিল সে। ওমানে থাকার সময়ে ফেসবুকে কলকাতার বেলঘরিয়ার এক যুবতীর সঙ্গে তার পরিচয় হয়েছিল৷ পরে ভালোবাসার সম্পর্ক গড়ে উঠে ছিল তাদের৷ সবটাই ঠিকঠাক চলছিল।

বাড়ি ফিরে আচমকা বিয়ের প্রস্তাব প্রেমিকাকে দিয়ে বসে বিশ্বজিৎ। তারপরই প্রেমিকার নতুন পরিচয় জানতে পারে সে। জানতে পারে তার প্রেমিকা বিবাহিত৷ তাই সে বিশ্বজিৎ-কে বিয়ে করতে পারবে না৷ সেই থেকেই মনমরা ছিল বিশ্বজিৎ। তারপর এদিন মায়ের শাড়ি দিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে সে।

মৃতের ভাই অভিজিৎ ওঝা বলেন, ‘ফেসবুকে দাদা একটি মেয়ের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিল। সেই মেয়েটি হঠাৎই দাদাকে বিয়ে করবে না বলে জানিয়ে দেয়। সে পূর্ব বিবাহিত ও তার সন্তান থাকা সত্বেও সে দাদার সঙ্গে মিথ্যা প্রণয়ের সম্পর্ক তৈরি করেছিল। সে কারণেই দাদা আঘাত পেয়ে আত্মহত্যা করেছে।’