স্টাফ রিপোর্টার, জলপাইগুড়ি: চিতাবাঘের চামড়া সহ এক যুবককে গ্রেফতার করল বনদফতর৷ জলপাইগুড়ির ওদলা বাড়ি এলাকা থেকে ওই যুবকে চিতাবাঘের চামড়া সহ গ্রেফতার করা হয়েছে৷ ধৃত যুবকের নাম আশিস ছেত্রী৷

বনদফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই যুবক দার্জিলিং থেকে ভুটানে চিতাবাঘের চামড়া নিয়ে যাচ্ছিল৷ তখনই যাওয়ার আগে জলপাইগুড়ির ওদলা বাড়ি এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে বনকর্মীরা৷ গত পাঁচদিন আগে দার্জিলিং এর টাকভার চা বাগানে ফাঁদ পেতে চিতাবাঘটিকে মারা হয়েছিল। চামড়াটি ভুটানের এক বাসিন্দার কাছে ৩ লক্ষ ২০ হাজার টাকার বিনিময়ে বিক্রি করার উদ্দেশ্যে নিয়ে যাচ্ছিল আশিস।

জানা গিয়েছে, আশিস ছেত্রীর বাবা আইআরবিতে কর্মরত। বেলাকোবা রেঞ্জের সঞ্জয় দত্তকে ধৃত আশিস জানিয়েছে, দার্জিলিং-এর টাকভার চা বাগানে ফাঁদ পেতে চিতাবাঘটিকে ধরে। এরপর বাঘটিকে মেড়ে চামড়া বিক্রির পরিকল্পনা করে সে। ভুটানের এক বাসিন্দার সঙ্গে চিতাবাঘের চামড়াটির দাম ঠিক হয় ৩ লক্ষ ২০ হাজার টাকা। সেই চামড়া ভুটানে নিয়ে যাওয়ার সময় মালবাজার মহকুমার ওদলা বাড়িতে বনদফতর আশিস ছেত্রীকে হাতেনাতে ধরে ফেলে৷ উদ্ধার হয় চিতাবাঘের চামড়াটি। ধৃত আশিস ছেত্রীকে বৃহস্পতিবার জলপাইগুড়ি জেলা আদালতে তোলা হয়।

এদিকে, সর্ষের মধ্যে ভূত থাকার গন্ধ পাচ্ছেন বনদফতরের অফিসাররা৷ তাঁদের অনেকেই মনে করছেন, এই পাচারকারীদের সঙ্গে তাঁদের দফতরেরই কোনও এক গাইডের যোগাযোগ রয়েছে৷ যিনি হাতের তালুর মতো জঙ্গলকে চেনেন৷