বেঙ্গালুরু: বিরাট কোহলি, কেন উইলিয়ামসন নয়তো স্টিভ স্মিথকে রোল মডেল করে ক্রিকেট খেলত আসছে তরুণ প্রজন্ম। জানালেন ‘দ্য ওয়াল’ রাহুল শারদ দ্রাবিড়। ভারতীয় ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান রাহুল দ্রাবিড়ের প্রশিক্ষণে ২০১৮ অনুর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ জিতেছিল ভারতীয় দল।

এছাড়া সাফল্যের সঙ্গে ভারতীয় ‘এ’ দলের হয়েও কোচিং করানো দ্রাবিড় বর্তমানে জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমির প্রধান। স্বাভাবিকভাবেই দেশের তরুণ ক্রিকেট প্রজন্মের একটা বড় অংশ বিগত কয়েকবছর ধরে লালিত-পালিত হয়ে আসছে ‘দ্য ওয়ালে’র হাতে।

তাই বিগত কয়েক বছরের অভিজ্ঞতাকে সঙ্গী করে দ্রাবিড় জানালেন কোহলি, উইলিয়ামসন কিংবা স্মিথকে আদর্শ করেই কেরিয়ার শুরু করছে তরুণ প্রজন্ম। প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক সম্প্রতি ইএসপিএন ভিডিওকাস্টে জানালেন, ‘আমি প্রচুর তরুণ ক্রিকেটারদের সঙ্গে কাজ করেছি। যখন তারা কেরিয়ার শুরু করতে যায় তখন কোহলি অথবা উইলিয়ামসন কিংবা স্মিথকে আদর্শ করেই এগোয়।’ একইসঙ্গে বর্তমান তরুণ প্রজন্ম তিন ফর্ম্যাটেই খেলতে চায় বলে জানিয়েছেন তিনি। পাশাপাশি অপেক্ষাকৃত কম দক্ষ এমন অনেক ক্রিকেটাররা আছেন যারা সহজেই বুঝতে পারেন কোহলি, পূজারা কিংবা রাহানের সঙ্গে একই দলে ক্রিকেট খেলাটা কতোটা কঠিন।

তবে সেই ক্রিকেটাররা হাল না ছেড়ে বরং সাদা বলের উপর ফোকাস করেন বলে জানিয়েছেন দ্রাবিড়। আইপিএল খেলা তখন তাদের অন্যতম প্রধান লক্ষ্য হয়ে দাঁড়ায় বলে জানিয়েছেন দেশের জার্সি গায়ে ১১৪টি টেস্ট খেলা কিংবদন্তি। আর ঠিক এই কারণেই আজকালকার ক্রিকেটারদের কেরিয়ার খুব স্বল্প সময় দীর্ঘায়িত হচ্ছে। তবে দ্রাবিড়ের কথায়, যারা সত্যিকারের সুপারস্টার তাদের লক্ষ্য থাকে সমস্ত ফর্ম্যাটের ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করা। দ্রাবিড়ের অভিযোগের সুরে বলেছেন আজকালকার ক্রিকেটারদের মধ্যে অনুশীলনের প্রবণতা খুব কম। যা তাদের কেরিয়ারের পক্ষে অন্যতম নেতিবাচক বিষয় হয়ে দাঁড়াচ্ছে।

এপ্রসঙ্গে বলতে গিয়ে ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও অজি তারকা ব্যাটসম্যান স্টিভ স্মিথের তিনটি ভিন্ন ফর্ম্যাটে নিজেকে মেলে ধরার প্রচেষ্টাকে কুর্নিশ জানিয়েছেন দ্রাবিড়। ‘দ্য ওয়ালে’র কথায়, ‘কোহলির মতো কিছু ক্রিকেটার দেখিয়ে দিয়েছে যে একজন ক্রিকেটার চাইলে তিন ফর্ম্যাটেই সমানভাবে নিজেকে মেলে ধরে পারে তবে সেজন্য অবশ্যই বিশেষ দক্ষতার প্রয়োজন। ও যেভাবে নিজেই নিজেকে চ্যালেঞ্জ করে সেটা ওর থেকে শেখার আছে তরুণদের।’ পাশাপাশি অনুশীলনে বিরাটের আলাদা পরিশ্রম নিয়েও আলাদা বাক্য খরচ করেন দ্রাবিড়। একইভাবে স্মিথের প্রশংসাতেও পঞ্চমুখ হয়েছেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ২৪,১৭৭ রানের মালিক।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ