স্টাফ রিপোর্টার, হাওড়া: যে পথে মোদী এসেছিলেন সেই পথেই শুরু হল সাঁতার। বছর আঠেরোর যুবক বেলুড় মঠ ফেরি ঘাট থেকে সাঁতার শুরু করে একে একে পেরোলেন মিলেনিয়াম পার্ক লঞ্চ ঘাট, হাওড়া ফেরি ঘাট। শেষ করলেন রামকৃষ্ণপুর ঘাটে। যে ঘাটের কাছেই গেলেন উঠল এনআরসি, সিএএ বিরোধী আওয়াজ। এমনই সমর্থন পেলেন মুকেশ গুপ্তা। তবে তার এই বিপুল সমর্থনের পিছনে ছিল মন্ত্রী অরূপ রায়ের সমর্থন।

দু’দিনের কলকাতা সফরে এসে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি গত ১১ জানুয়ারি বেলুড় মঠে রাত্রিযাপন করেছিলেন এবং পরের দিন ১২ জানুয়ারি সকালে বেলুড় মঠে জাতীয় যুব দিবসের অনুষ্ঠানে দাঁড়িয়ে এনআরসি এবং সিএএ-র সমর্থনে বক্তব্য তুলে ধরেছিলেন। যা নিয়ে রাজনৈতিক মহলে প্রবল বিতর্ক তৈরি হয়।

বেলুড় মঠের মতো অরাজনৈতিক একটি ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে দাঁড়িয়ে প্রধানমন্ত্রীর এই ধরনের বক্তৃতা নিয়ে বিরোধীরা সরব হন। এরই প্রতিবাদ জানাতে রবিবার সকালে প্রধানমন্ত্রী যে পথে বেলুড় মঠে এসেছিলেন ঠিক তার উল্টো রুটে গঙ্গায় সাঁতার কেটে এনআরসি এবং সিএএ-র প্রতিবাদে সরব হলেন জাতীয় সাঁতারু মুকেশ গুপ্তা।

রবিবার সকাল থেকে মুকেশ রামকৃষ্ণপুর ঘাট পর্যন্ত সাঁতার কেটে পাড়ি দেন। মোদি যেভাবে বেলুড় মঠে এসে এনআরসি এবং সিএএ-র পক্ষে প্রচার করেছিলেন এই জাতীয় স্তরের সাঁতারু এদিন এনআরসি এবং সিএএ-র বিপক্ষে প্রচার করতে বেলুড় জেটি থেকে রামকৃষ্ণপুর ঘাট পর্যন্ত সাঁতরে পার হন। তাঁর এই যাত্রার শুভ সূচনা করেন রাজ্যের সমবায় মন্ত্রী অরূপ রায়।

উপস্থিত ছিলেন প্রাক্তন কাউন্সিলর ভাস্কর ভট্টাচার্য্য, কৈলাশ মিশ্র সহ আরও অনেকে। এরপর রামকৃষ্ণপুর ঘাটে ওই সাঁতারুকে সংবর্ধনা জানানো হয়। প্রধানমন্ত্রী যে পথে মিলেনিয়াম পার্ক থেকে বেলুড় মঠে এসেছিলেন তার ঠিক উল্টো পথে বেলুড় মঠ থেকে মিলেনিয়াম পার্ক এর ঠিক বিপরীতে রামকৃষ্ণপুর ঘাট পর্যন্ত এনআরসি এবং সিএএ-র বিপক্ষে এদিন প্রচার চালানো হয়।

সমবায় মন্ত্রী অরূপ রায় বলেন, “এটা এনআরসি এবং সিএএ-র বিরুদ্ধে প্রতিবাদ। মুকেশ গুপ্তা একজন জাতীয় স্তরের সাঁতারু। মুকেশ একদিন আমার কাছে এসে প্রস্তাব দিয়েছিল যে সে এনআরসি এবং সিএএ-র বিরুদ্ধে সাঁতারের মাধ্যমে আন্দোলন করতে চায়। যেহেতু প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী মিলেনিয়াম পার্ক থেকে বিলাসবহুল জলযানে করে বেলুড় মঠে এসেছিলেন, এবং এখানে এসে বেলুড়ের পবিত্র মাটিতে দাঁড়িয়ে তিনি রাজনীতি করে গেছেন সেই কারণে আমরা এই জায়গাকে বেছে নিলাম। বেলুড় ঘাট থেকে যেখানে মোদী নেমেছিলেন ঠিক উল্টো করে আমরা মিলেনিয়াম পার্কের উল্টোদিকের রামকৃষ্ণপুর ঘাট পর্যন্ত বেছে নিলাম। যেখানে স্বামীজি শিকাগো ধর্মসভা থেকে ফিরে যেখানে এসেছিলেন এবং নৌকো করে নেমেছিলেন সেই জায়গা পর্যন্ত আমরা বেছে নিয়েছি।”