Colorful Hindu wedding in India

বালেশ্বর: ‘বিয়ে-পাগল’ যুবকের কীর্তিতে থর-হরি কম্প অবস্থা গোটা এলাকায়। লকডাউন ভেঙে ওড়িশার বালেশ্বর থেকে বন্ধুদের নিয়ে বিয়ে করতে পূর্ব মেদিনীপুরে আসেন যুবক। পুলিশের নজর এড়িয়েই জাঁকজমক করে যুবকের বিয়ে হয় পূর্ব মেদিনীপুরের রামনগরে। পরে সেই যুবকেরই করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। এরপরই আতঙ্কে ঘুম ছুটেছে আমন্ত্রিতদের। প্রাণ বাঁচাতে অনেকেই করোনা পরীক্ষার জন্য ছুটছেন হাসপাতালে।

বালেশ্বরের ভোগারাই ব্লকের পলাসিয়া এলাকার বাসিন্দা ওই যুবক। কর্মসূত্রে যুবক থাকেন বেঙ্গালুরুতে। সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে তাঁর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক তৈরি হয় পূর্ব মেদিনীপুরের রামনগরের এক তরুণীর।

কয়েকমাস প্রেম-পর্ব চলার পর ১৭ এপ্রিল তাঁদের বিয়ের দিন ঠিক হয়। ইতিমধ্যেই করোনা পরিস্থিতির জেরে দেশজুড়ে শুরু হয়ে যায় লকডাউন। এই পরিস্থিতিতে অনেকে বারণ করলেও বিয়ে করতে ‘পাগল’ ছিলেন ওই যুবক।

বিয়ের নির্ধারিত দিনেই বন্ধুদের সঙ্গে নিয়ে বেশ কয়েকটি বাইক নিয়ে বালেশ্বর থেকে পূর্ব মেদিনীপুরের রামনগরে চলে যান ওই যুবক। পুলিশের নজর এড়িয়ে কনের বাড়িতে ধুমধাম করে হয় বিয়ের আয়োজন।

লকডাউনের মধ্যে কোনও বিয়ের অনুষ্ঠান হলেও সেখানে একসঙ্গে ১০ জনের বেশি জমায়েতে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। তা সত্ত্বেও লকডাউন-বিধিকে বুড়ো আঙুল দেখিয়েই বিয়ের আসরে জমাটি নাচে অংশ নেন বরযাত্রীরা, যোগ দেন কনে-পক্ষেরও অনেকে।

এতদূর ঠিকই ছিল। তাল কাটল বউ নিয়ে বাড়ি ফেরার পর। দিন কয়েকের মধ্যেই করোনার উপসর্গ দেখা দেয় ওই যুবকের। তড়িঘড়ি করানো হয় স্বাস্থ্য পরীক্ষা। জানা যায়, তিনি নোভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এই খবর ছড়িয়ে পড়তেই কাঁপুনি ধরে যায় গোটা এলাকায়।

ওই যুবকের যে বন্ধুরা তাঁর সঙ্গে পূর্ব মেদিনীপুরে বিয়েতে এসেছিলেন তাঁরা পড়েন ঘোর দুশ্চিন্তায়। আতঙ্কে এরপর সবাই মিলে করোনা পরীক্ষা করাতে ছোটেন নিকটবর্তী হাসপাতালে।

এদিকে, এই ঘটনকে কেন্দ্র করে সীমানার এপারে পূর্ব মেদিনীপুরেও ছড়িয়েছে আতঙ্ক। যুবকের শ্বশুরবাড়ির কয়েকজনেরও করোনা পরীক্ষা করানো হয়েছে। তবে তাঁদের রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে বলে জানা গিয়েছে। অন্যদিকে, লকডাউনের মধ্যে বালেশ্বর থেকে বাইক নিয়ে একসঙ্গে ৩০ জনের দল কীভাবে সীমান পেরিয়ে পশ্চিমবঙ্গে গেল, তা নিয়ে অস্বস্তিতে পড়েছে বালেশ্বর প্রশাসনও।

জানা গিয়েছে, ইতিমধ্যেই করোনা আক্রান্ত ওই যুবককে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাঁর পরিবারের সদস্যদের বাড়িতেই থাকতে বলা হয়েছে। ওই যুবকের সংস্পর্শে যাঁরা এসেছেন তাঁদেরও একটি তালিকা তৈরি করা হয়েছে। তাঁদেরও কোয়ারেন্টাইনে রাখার ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।