নয়াদিল্লি: সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের মুখে বিজেপির চাপ বাড়িয়ে ৫০টি শহরে মোদী সরকারকে ভোট না দেওয়ার ব্যাপারে ভোটারদের বোঝাবে ৭০টি সংগঠন৷ শেষ পাঁচ বছরে দেশের যুবাদের জন্য প্রচর কর্মসংস্থানের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল মোদী সরকার৷ কিন্তু প্রয়োজনীয় কর্মসংস্থান করে উঠতে ব্যর্থ তারা৷ তাই সাধারণ মানুষ যাতে মোদী সরকারকে ভোট না দেয় সে জন্য ভোটারদের বোঝাবে ইয়ং ইন্ডিয়া ন্যাশনাল কোঅর্ডিনেশন কমিটির ছাতার তলায় প্রায় থাকা প্রায় ৭০টি সংগঠন৷

১১ এপ্রিল দেশের সাধারণ নির্বাচনের প্রথম দফার ভোট গ্রহন৷ তার আগেই ভারতবর্ষের গুরুত্বপূর্ণ ৫০টি শহরে ভোটারদের সঙ্গে দেখা করে মোদী সরকার বিরোধী প্রচার চালানোর কথা জানিয়েছে ইয়ং ইন্ডিয়া ন্যাশনাল কোঅর্ডিনেশন কমিটি৷ সম্প্রতি এই কমিটির একটি মিটিংয়ে বামপন্থী ছাত্র সংগঠন অল ইন্ডিয়া স্টুডেন্টস অ্যাসোসিয়েশনসের তরফে জেএনইয়ুর স্টুডেন্ট ইউনিয়নের প্রেসিডেন্ট এন সাই বালাজি বলেন, ‘‘প্রতিশ্রুতি মতো শিক্ষার মানোন্নয়ন এবং প্রয়োজনীয় কর্মসংস্থান তৈরিতে ব্যর্থ মোদী সরকার৷

তাই ইয়ং ইন্ডিয়া ন্যাশনাল কোঅর্ডিনেশন কমিটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে মোদীর সরকার-কে পুনরায় নির্বাচিত না করার অনুরোধ জানাবে ভোটারদের৷ বাড়ি বাড়ি গিয়ে বিজেপি-কে ভোট না দেওয়ার কথা বলা হবে৷ ’’

এই মোদী সরকার বিরোধী প্রচার শুরু হবে উত্তরপ্রদেশের বদায়ুন থেকে৷ কারণ জেএনইয়ুর ছাত্র নিখোঁজ নাজীব আহমেদ এই বদায়ুনের ছেলে৷ সমাীজবাদী যুবজন সভার নাসির আহমেদ বলেন, ‘‘ প্রতিবছর দু-কোটি কর্মসংস্থানের কথা বলেছিল মোদী সরকার৷ সেখানে প্রতি বছর দু’হাজার কর্মসংস্থানও তৈরি করতে পারেনি ওরা৷ সমাজবাদী পার্টি, বহুজন সমাজবাদী পার্টি এবং রাষ্ট্রীয় লোকদল সাধারণ মানুষের কাছে এই বার্তা তুলে ধরে মোদীকে ভোট না দেওয়ার দাবী জানাবেন৷’’

অল ইন্ডিয়া রেলওয়ে অ্যাপ্রেন্টিসের নেতা আশীস জানান, ‘‘এলাবাহাবাদে সাফাইকর্মীদের পা ধুইয়ে দিয়ে নাটক করছেন মোদী৷ যদি উনি সত্যি ওদের কথা ভাবতেন তাহলে এদের জন্য কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতেন৷’’