ঢাকা: ছোটবেলা মন গঠনের সময়। আজকের শিশু আগামীর ভবিষ্যৎ। শিশুমন কখনওই পড়াশোনায় আকর্ষণ বোধ করে না। তাই ছোটদের খেলাধুলোর মধ্যে দিয়ে শিক্ষা অর্জনের জন্য গুরুত্ব দিলেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, “শিশুদের শুধু পড় পড় বললে তাদের পড়তে ইচ্ছা করে না। খেলাধুলার মধ্যদিয়ে তাদের পড়ালেখা শেখাতে হবে।”

মঙ্গলবার প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা এবং জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট বণ্টনের অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে দিয়ে এই কথা বলেন শেখ হাসিনা। পড়াশোনার পাশাপাশি বিনোদনের গুরুত্ব অপরিসীম, এমনটাই মনে করেন তিনি। হাসিনার কথায়, “আমাদের ছেলেমেয়েরা খেলাধুলায় ভালো করছে। এ ক্ষেত্রে তারা যেন আরও এগিয়ে যেতে পারে, সে জন্য প্রত্যেক উপজেলায় একটি করে মিনি স্টেডিয়াম করে দিচ্ছি।”

প্রধানমন্ত্রীর এই সিদ্ধান্তে খুশি বাংলাদেশের নানা মহল। প্রতি উপজেলায় একটি করে মিনি স্টেডিয়াম গড়ে উঠলে আগামী দিনে পড়াশোনার পাশাপাশি খেলাধুলোতেও মনযোগী হতে পারবে। এদিনের অনুষ্ঠানে হাসিনা আরও বলেন, “আমরা ছেলেমেয়েদের আধুনিক ও প্রযুক্তি জ্ঞনসম্পন্ন শিক্ষা দিতে চাই; তারা যেন যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে পারে। সারাদেশে ইউনিয়ন পর্যায়ে ব্রড ব্যান্ড লাইন চালু করছি। কম্পিউটার শিক্ষার জন্য বিশেষ ব্যবস্থা নিয়েছি। যেন তারা দ্রুত প্রযুক্তি শিখে নিতে পারে। এখনকার ছেলেমেয়েরা আমাদের সময়ের চেয়ে অনেক বেশি মেধাবী। তারা এগুলো সহজে শিখে নিতে পারবে।”

শিক্ষাখাতে বাংলাদেশ সরকারের ভূমিকার কথা মনে করিয়ে দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “শিক্ষা বিস্তারে আমরা বিনামূল্যে বই দিচ্ছি। শিক্ষকদের বেতন বাড়িয়ে দিয়েছি। উচ্চশিক্ষাসহ সবস্তরে বৃত্তি দেওয়া হচ্ছে। স্কুলে টিফিনের ব্যবস্থা করেছি। কোনও শিক্ষার্থী যেন ঝরে না পড়ে, এজন্য সরকারের পক্ষ থেকে সাহায্য করা হচ্ছে।”

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনাকালে বিনোদন দুনিয়ায় কী পরিবর্তন? জানাচ্ছেন, চলচ্চিত্র সমালোচক রত্নোত্তমা সেনগুপ্ত I