প্রতীতি ঘোষ, বারাকপুর: ভোটের দিন যতই এগিয়ে আসছে ততই প্রচারে ঝাঁজ বাড়াচ্ছেন বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা নেত্রীরা। সোমবার উত্তর ২৪ পরগণার বনগাঁ লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী শান্তনু ঠাকুরের সমর্থনে সভা করেন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। কিন্তু ওই সভাতেই স্বয়ং শান্তনু ঠাকুর উপস্থিত ছিলেন না৷

আর এই সভায় তাঁর অনুপস্থিতিকে ঘিরে তৈরি হয়েছে নানা জল্পনা৷ যদিও সভা শেষে বিজেপির বারাসত সংগঠনের সভাপতি প্রদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় সেই জল্পনার অবসান ঘটালেন। তিনি বলেন ডায়রিয়ার জন্য শারীরিকভাবে অসুস্থ হয়ে বাড়িতেই রয়েছেন শান্তনু৷ তাই এই সভায় যোগদান করতে পারেননি তিনি।

এদিন বনগাঁর আর এস মাঠে বিজেপির দলীয় সভায় যোগদান করেন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। এদিন দুপুর ১২ টা ৫ মিনিটে সভায় যোগদান করেন৷ প্রায় ১৫ মিনিট বক্তৃতা রাখেন সভায়। এরপর অন্য সভার উদ্দেশ্যে বেরিয়ে যান তিনি।

সভায় ভাষণ দিতে গিয়ে যোগী বলেন, ‘‘ভারতের জন্য বাংলার অনেক অবদান রয়েছে। বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের বন্দে মাতরম, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের গান ভারতকে উপহার দিয়েছেন। এছাড়াও রামকৃষ্ণ পরমহংসদেব, স্বামী বিবেকানন্দর মতো মানুষের জন্ম এই বাংলায় তা উল্লেখ করেন। ডঃ শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় এই বাংলাতেই জন্মগ্রহণ করেছে৷ তাই তার জন্মভূমিকেও কোটি কোটি প্রণাম জানাই৷’’

তাঁর দাবি, অসম, ত্রিপুরা, পাঞ্জাব, কর্ণাটকের মতো বিজেপি সরকারের নেতৃত্বাধীন সরকার বহু কাজ করছে। আর কংগ্রেস কমিউনিস্টরা এবং তৃণমূল তার কাজকে ব্যাঘাত ঘটানো চেষ্টা করছে এমনটাই দাবি করেছেন তিনি৷ পাশাপাশি দুই বছরে উত্তরপ্রদেশে মোদী সরকারের সহযোগিতায় দু বছরে তার রাজ্যে ২৪ লক্ষ মানুষকে ঘরের ব্যবস্থা করেছেন। এক কোটি গরিব মানুষকে বিনা পয়সায় বিদ্যুৎ সংযোগের ব্যবস্থা করেছেন। ১ কোটি ১২ লক্ষ মানুষকে শুল্ক ছাড়া এলপিজি গ্যাসের ব্যবস্থা করেছেন।

২ কোটি ১৪ লক্ষ কৃষককে প্রধানমন্ত্রী কৃষক নিধির মাধ্যমে ছয় হাজার টাকা করে সাহায্য দেওয়া হয়েছে। তার দু বছরের সরকারে ইতিমধ্যেই ৩ কোটি ৫৫ লক্ষ রেশন কার্ডের মাধ্যমে গরিব মানুষের খাবারের ব্যবস্থা করছে। এই পরিসংখ্যান তুলে ধরার পর যোগী বলেন, পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি ক্ষমতায় এলে এই সমস্ত সুবিধা এরাজ্যের মানুষও পাবেন।

যোগীর অভিযোগ, বাংলাতে কেউ নিবেশ করতে চায় না৷ কারণ এখানে তৃণমূলের গুন্ডাগিরি চলছে। আর নিবেশ না হওয়ায় চাকরির ক্ষেত্রে বড় বাধার সম্মুখীন হচ্ছে যুবকেরা। এই সভাতেও পুলিশ এবং তৃণমূল বিজেপি কর্মীদের আসতে বাধা দিয়েছে। পাশাপাশি প্রচণ্ড গরম উপেক্ষা করে সাধারণ মানুষ এই সভায় যোগদান করায় তাদেরকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন যোগী আদিত্যনাথ।