রাঁচি: সব স্তরের মানুষের জন্য যোগা৷ শান্তি, সম্প্রীতি, সমৃদ্ধি ও সুস্থ থাকার জন্য যোগাভ্যাস অত্যন্ত জরুরি৷ পঞ্চম আন্তর্জাতিক যোগা দিবসে এই বার্তা ছড়িয়ে দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী৷ এদিন রাঁচির প্রভাত তারা ময়দানে প্রায় ৩০ হাজার মানুষের সঙ্গে যোগ ব্যায়াম চর্চা করেন প্রধানমন্ত্রী৷

তার আগে দেশবাসীর উদ্দেশ্যে মোদীর বার্তা, যোগ ব্যায়ামকে গরিব মানুষের জীবনে অপরিহার্য করে তোলা আমাদের প্রচেষ্টা হওয়া উচিত৷ কারণ, রোগ গরিব মানুষকে আরও গরিবির মুখে ঠেলে দেয়৷ তাই শহর থেকে গ্রাম, গ্রাম থেকে জঙ্গল, জঙ্গল থেকে আদিবাসীদের মধ্যে এর ব্যাপ্তি ঘটানো দরকার৷ সব স্তরের মানুষের জন্য যোগা৷ স্থান, কাল পাত্র, জাতি, ধর্ম, বর্ণ ও লিঙ্গের উর্ধ্বে যোগা ব্যায়াম৷

যোগ ব্যায়ামের মাহাত্ম্য বোঝান মোদী৷ তাঁর সংযোজন, প্রাচীন কাল থেকে ভারতে এর চর্চা চলে আসছে৷ যা আজ বিশ্বের প্রতি কোণে ছড়িয়ে পড়েছে৷ যোগ ব্যায়ামের উদ্দেশ্য সুস্থ শরীর, স্থির মন ও একাত্মবোধের মানসিকতা তৈরি করা৷ জ্ঞান, কর্ম ও ভক্তির সংমিশ্রণ হল যোগা৷ জীবনে অনুশাসন প্রতিষ্ঠায় সনাতন ভারতীয় যোগাভ্যাস চর্চা করা সবার দরকার৷ এদিন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মঞ্চে ছিলেন ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী রঘুবীর দাস, রাজ্যপাল দ্রৌপদী মুর্মু, স্বাস্থ্যমন্ত্রী রামচন্দ্র চন্দ্রবংশী প্রমুখ৷

নিয়মিত যোগ ব্যায়াম অনুশীলনে অনেক রোগ থেকে মুক্তি মেলে৷ সবার মধ্যে এই ধারণা মজবুত করতে চায় মোদী সরকার৷ তাই রোগের মোকাবিলায় ওষুধের বিকল্প হয়ে উঠতে পারে যোগাভ্যাস৷ প্রধানমন্ত্রী বলেন, যোগা নিয়ে আরও গবেষণা প্রয়োজন৷ মেডিসিন, ফিজিওথেরাপির বিকল্প হয়ে উঠতে পারে৷ বর্তমান যুগে কমবয়সীদের মধ্যে হার্টের রোগ বেড়ে যাওয়া নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন নরেন্দ্র মোদী৷ বলেন, তরুণদের মধ্যেও হৃদরোগে ভোগার প্রবণতা দেখা যাচ্ছে৷ তাদের যোগ ব্যায়াম করা দরকার৷ এতে হৃদরোগের অনেক সমস্যা মেটানো সম্ভব৷ সেই কারণে এই বছরের থিম হল যোগা ফর হার্ট৷

আজ রাঁচীর প্রভাত ময়দানে মোদীর এই যোগ দিবস পালনকে কেন্দ্র করে আঁটোসাঁটো নিরাপত্তার আয়োজন করা হয়৷ ব্যবস্থা রাখা হয় ৪০০টি বায়ো টয়লেট, ২০০ জলের কিয়স্ক, ৮টি মেডিকেল টিম, ২১টি অ্যাম্বুলেন্স। লাগানো হয় ১০০টি সিসিটিভি ক্যামেরা। ২৮টি বড় পর্দায় দেখানো হয় মোদী ও অংশগ্রহণকারীদের যোগচর্চা।

মোদী সরকারের সব মন্ত্রী ও বিজেপি নেতারা এদিন নানা জায়গায় যোগ ব্যায়ামের প্রচার করে বেরিয়েছেন৷ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং দিল্লির রাজপথে একটি অনুষ্ঠানে অংশ নেন৷ অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন ও সাংসদ গৌতম গম্ভীর যমুনা স্পোর্টস কমপ্লেক্সের অনুষ্ঠানে যোগ ব্যায়াম অনুশীলন করেন৷ সদ্য লোকসভার অধ্যক্ষ নির্বাচিত হওয়া ওম বিড়লা পার্লামেন্ট হাউস কমপ্লেক্সে যোগ ব্যায়াম চর্চা করেন৷

২০১৪-য় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির অনুরোধে আজকের দিনটিকে আন্তর্জাতিক যোগ দিবসের তকমা দেয় রাষ্ট্রসংঘ৷ তারপরই ২০১৫ থেকে ২১ জুন আন্তর্জাতিক যোগদিবস বলেই খ্যাত।