মুম্বই: ইয়েস ব্যাংকের মোরাটোরিয়াম ঘোষণার ২৪ ঘন্টার মধ্যে রিজার্ভ ব্যাংক ঘোষণা করল এই ব্যাংকের পুনর্গঠন প্রকল্প ৷ এর ফলে ইয়েস ব্যাংকের অথোরাইস ক্যাপিটাল পরিবর্তন করে ৫০০০কোটি টাকা ৷ ইক্যুটি শেয়ারের সংখ্যা কমিয়ে আনা হল ২৪০০কোটি যাদের ফেসভ্যালু দুই টাকা ৷ পুনর্গঠিত ব্যাংকে লগ্নিকারী ব্যাংকের অর্থাৎ স্টেট ব্যাংকের  ৪৯ শতাংশ শেয়ার থাকবে যা  ২৪৫০ কোটি টাকা  ৷

এক্ষেত্রে লগ্নিকারীর বিনিয়োগ তিন বছরের জন্য ‘লগ ইন পিরিয়ড’ হিসেবে থাকবে ৷ তবে তারা কখনই তাদের অংশিদারিত্ব ২৬ শতাংশের তলায় নিয়ে যেতে পারবে না৷ বিনিয়োগকারী ( স্টেট ব্যাংক) দুজন নমিনি ডিরেক্টর নিয়োগ করতে পারবে ৷ তাছাড়া রিজার্ভ ব্যাংক ওই পুনর্গঠিত ব্যাংকে অতিরিক্ত ডিরেক্টর নিয়োগ করবে ৷

তবে পুনর্গঠিত ব্যাংকের অধিকার এবং দায়ের কোনও পরিবর্তন হবে না৷ ব্যাংকের অতিরিক্ত টিয়ার-এয়ান ক্যাপিটাল পুরোপুরি মুছে দেওয়া হবে ৷ অ্যাকাউন্টহোল্ডাররা পুনর্গঠিত ব্যাংকের কাছ থেকে কোনও ক্ষতিপূরণ পাবে না৷ কোনও পরিবর্তন হচ্ছে না অফিস অথবা শাখা নেটওয়ার্কে ৷ তবে পুনর্গঠিত ব্যাংক নতুন শাখা খুলতে পারবে এবং পুরনো অফিস এবং শাখা বন্ধ করতে পারবে ৷ আগামী অন্তত এক বছর এই ব্যাংকের কর্মীরা একই শর্তে কাজ করতে পারবেন৷

 প্রসঙ্গত, ৫০,০০০ টাকার বেশি তোলা যাবে না ‘ইয়েস ব্যাংক’ থেকে এই মর্মে বৃহস্পতিবারই  নির্দেশিকা জারি করেছিল রিজার্ভ ব্যাংক। তারপর থেকেই শুরু হয়েছে ‘প্যানিক।’অবশেষে এই বিষয়ে শুক্রবার মুখ খুললেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। তিনি আশ্বাস দিয়ে জানিয়েছেন, সবার টাকা সুরক্ষিতই আছে। দ্রুত এই পরিস্থিতি থেকে মুক্তি মিলবে বলেও জানিয়েছেন তিনি। বলেন, ‘ইয়েস ব্যাংকের গ্রাহকদের সব টাকা সুরক্ষিত আছে। সরকার দ্রুত সমাধান আনবে।’

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।