শ্রীনগর: গ্রেফতার বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতা ইয়াসিন মালিক৷ শ্রীনগরে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের প্রতিবাদ মিছিল চলাকালীন মালিককে গ্রেফতার করে শ্রীনগর পুলিশ৷ কোথিবাগ পুলিশ স্টেশনে নিয়ে যাওয়া হয় মালিককে৷

গতকাল জঙ্গি নিকেশের সময় নিহত হন এক নাগরিক৷ প্রতিবাদে সোমবার শ্রীনগরের রাস্তায় প্রতিবাদ মিছিল করে বিচ্ছিন্নতাবাদী বিভিন্ন সংগঠন৷ নেতৃত্বে ছিলেন ইয়াসিন মালিক৷ রবিবারই প্রতিবাদ মিছিলের কথা ঘোষণা করে বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠনগুলি৷ সোমবার উত্তেজনা আঁচ পেয়েই শ্রীনগর জুড়ে বিরাট পুলিশ ও সেনা বাহিনী মোতায়েন করা হয়৷ ইয়াসিন মালিককে গ্রেফতারের উপযুক্ত কারণ দেখাতে পারেনি পুলিশ৷ কোথিয়াবাগ পুলিশ স্টেশনে ইয়াসিনকে প্রথমে আটক ও পরে গ্রেফতার করা হয়৷ অবশ্য, আইন শৃঙ্খলা রক্ষার কারণেই ইয়াসিনকে গ্রেফতার করা হয় বলে জানিয়েছে পুলিশ৷ রবিবার কাশ্মীরের কুলগামে এনকাউন্টারে খতম হয় ২ লস্কর জঙ্গি৷ গুলির লড়াই চলাকালীন নিহত হন এক সাধারন নাগরিকও৷

সেনা অভিযান চলাকালীন বার বার নাগরিকদের মৃত্যু মানবাধিকার লঙ্ঘন করছে৷ সেই দাবিতে বিভিন্ন বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠন নিয়ে গঠিত The Joint Resistance Leadership (JRL) প্রতিবাদ মিছিল করে৷ মিছিলে সামিল হন সয়ৈদ আলি শাহ গিলানি,মিরওয়াজি মৌলবী, ওমর ফারুক সহ ইয়াসিন মালিক৷ এর আগেও দীর্ঘ সময় গৃহবন্দি ছিলেন ইয়াসিন মালিক৷

কাশ্মীরের আইন শৃঙ্খলা অনেরবারই তাঁর জন্য বিপর্যস্ত হয়েছে বলে অভিযোগ৷ রাজ্যপাল শাসিত উপত্যকায় কোনওরকম ঝুঁকি নিতে চাইছেব না পুলিশ৷ সেই কারণেই ইয়াসিন মালিককে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে দাবি৷ রবিবারের এনকাউন্টারে নিহত দুই জঙ্গির মধ্যে রয়েছে লস্কর-ই-তোয়েবার ডিভিশনাল কমান্ডার শকুর আহমেদ দর, সহ আরও এক মোস্ট ওয়ান্টেড জঙ্গির। সেইসঙ্গে অপর এক জঙ্গি আত্মসমর্পণও করে৷২১ জন জঙ্গির যে তালিকা সেনাবাহিনী তৈরি করেছিল, তার মধ্যেই ছিল এই শকুর দরের নাম। হিট লিস্টে রয়েছে আর এক লস্কর জঙ্গি হায়দারের নাম, যে পাকিস্তানের নাগরিক বলে জানা গিয়েছে।

উপত্যকায় একদিকে জঙ্গি দমনে অভিযান, অন্যদিকে জারি রাজ্যপাল শাসন৷ উন্নয়নের বার্তা দিতে মাঝে মাঝেই উপত্যকায় আসরে নামছে বিজেপি-পিডিপি সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল৷ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে তাই বিচ্ছিন্নতাবাদীদের উদ্দেশ্যে প্রথম থেকেই দমন নীতি নিচ্ছে পুলিশ বলে সূত্রের খবর৷