মুম্বই: আগামী বছর অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ ক্রিকেটের জন্য সোমবার দল ঘোষণা করেছে ভারত৷ এই দলে সুযোগ পেয়েছে ১৭ বছর বয়সি যশস্বী জসওয়াল৷ ক্রিকেট প্র্যাকটিসের ফাঁকে ফুচকা বিক্রি করে আর্থিক উপার্জন করত মুম্বইয়ের এই কিশোর ক্রিকেটার৷

পেশায় ফুচকা বিক্রেতা হলেও ক্রিকেটের প্রতি অগাধ ভালোবাসার প্রতিদান পেলেন যশস্বী৷ নিয়মিত ক্রিকেট প্র্যাকটিস করেছেন৷ আর প্র্যাকটিসের পরে প্রায তিন বছর তাঁবুতে রাত কাটাতে হয়েছে দরিদ্র ক্রিকেটারটিকে। আজাদ ময়দানে রাম লীলা’র সময় ফুচকা বিক্রি করে কিছু টাকা অপার্জন করতে সে৷ জন্ম উত্তরপ্রদেশের সুরিয়ায় হলেও ১১ বছর বয়সে বাবার হাত ধরে বাণিজ্য নগরীতে চলে আসেন যশস্বী৷ তখন থেকে ক্রিকেট খেলা শুরু এবং ক্রিকেট খেলার ফাঁকে ফুচকা ও পুরি বিক্রি করতে হত তাকে৷ ফুচকা বিক্রেতা এই ছেলেটি এবার বিশ্বকাপে ভারতীয় দলের জার্সিতে মাঠে নামবে৷

১৭ বছরের যশস্বী মুম্বইয়ের সিনিয়র দলের হয়ে একটি মাত্র ম্যাচ খেলেছেন৷ গত মরশুমে রঞ্জি ট্রফিতে ছত্রিশগড়ের বিরুদ্ধে প্রথমশ্রেণির ক্রিকেটে অভিষেক হয় তার৷ তবে এখনও পর্যন্ত ন’টি লিস্ট-এ ম্যাচ খেলেছে যশস্বী৷ চলতি বছর বিজয় হাজারে ট্রফিতে দুরন্ত পারফরম্যান্স করে নির্বাচকদের নজর কাড়ে৷ ঝাড়খণ্ডের বিরুদ্ধে ১৫৪ বলে ২০৩ রানের বিধ্বংসী ইনিংস খেলে প্রতিভার পরিচয় রাখে মুম্বইয়ের বাঁ-হাতি৷ ইনিংসে ১২টি ছক্কা ও ১৭টি বাউন্ডারি মারে কিশোর এই ক্রিকেটারটি৷ যশস্বীকে ইতিমধ্যেই বাঁ-হাতি বিরাট কোহলি বলে ডাকা হচ্ছে৷

ঘরোয়া ক্রিকেটে মুম্বইয়ের হয়ে অনবদ্য পারফরম্যান্স রয়েছে। কনিষ্ঠ ক্রিকেটার লিস্ট-এ ক্রিকেটে দ্বি-শতরান করার নজির রয়েছে যশস্বীর। ভারতীয় দলে সুযোগ পাওয়ার পর যশস্বীর বাবা ভূপেন্দর কুমার জসওয়াল বলেন, ‘ছোট থেকেই স্বপ্ন দেখত একদিন ভারতীয় দলের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করবে৷ সেই স্বপ্নই এবার পূরণ হতে চলেছে৷’ অর্ধেক দিন না-খেয়েই রাত কাটাতে হয়েছে প্রতিশ্রুতিময় এই ক্রিকেটারকে৷

নতুন বছরের শুরুতেই দক্ষিণ আফ্রিকায় বসছে যুব বিশ্বকাপের আসর। ১৩তম অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপ শুরু হবে ১৭ জানুয়ারি, ২০২০। ফাইনাল ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে ৯ ফেব্রুয়ারি। ১৬টি দল অংশ নেবে আইসিসি-র এই টুর্নামেন্ট। এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে বেশিবার এই টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ভারত৷ ২০১৮ বিশ্বকাপ ফাইনালে অস্ট্রেলিয়াকে পরাজিত করে চ্যাম্পিয়ন হয় পৃথ্বী শ’র নেতৃত্বাধীন ভারতীয় দল। এবার ভারতীয় দলকে নেতৃত্ব দেবেন প্রিয়ম গর্গ৷