ভারতের বাজারে ইতিমধ্যে যথেষ্ট জনপ্রিয় একটি ব্র্যান্ড শাওমি। তাদের তরফে আনা হয়েছে একের পর এক ফোন এবং অন্যান্য গ্যাজেট। যা যথেষ্ট সুবিধা দিয়েছে সাধারণকে। এমনকি বিভিন্ন ছুটির মরসুমে সাধারণের জন্য শাওমির তরফে আনা হয়েছে বেশ কিছু সেল।

যা সুবিধা দিয়েছে সাধারণকে। তবে নতুন বছরে ক্রেতাদের সুবিধার জন্য প্রজাতন্ত দিবসে আনা হয়েছে নতুন রিপাবলিক ডে সেল। জানা গিয়েছে ফ্লিপকার্ট এবং অ্যামাজনের সঙ্গে শাওমির তরফেও আনা হবে এই সেল। আর এই সেলে থাকবে শাওমির ফোন এবং গ্যাজেটের উপরে আকর্ষণীয় ছাড়ের সুবিধা।

এই সেল শুরু হবে ২০ জানুয়ারি থেকে চলবে ২৪ জানুয়ারি পর্যন্ত। এই সেলে redmi ফোন থেকে শুরু করে অন্যান্য ফোনের উপরেও থাকবে বিশেষ ছাড়। পাশপাশি ক্রেতাদের জন্য থাকবে অতিরিক্ত সুবিধা। জানানো হয়েছে redmi earbuds s, mi smart water purifier mi v stick থেকে শুরু করে অন্যান্য জিনিস পাবেন অত্যন্ত কম দামে।

redmi 9i ফোন পাওয়া যাবে মাত্র ৭৯৯৯ টাকাতে। এই দামে পাওয়া যাবে ৪ জিবি র‍্যাম এবং ৬৪ জিবি স্টোরেজ যুক্ত ফোন। অর্থাৎ আগের থেকে অনেকটাই কম দামে পাওয়া যাবে এই ফোন। অন্যদিকে জানা গিয়েছে redmi 9 prime পাওয়া যাবে অনেক কম দামে।

আগের দামের থেকে ৫০০ টাকা কমে পাওয়া যাবে এই ফোন। এই দামে পাওয়া যাবে ৪ জিবি র‍্যাম এবং ৬৪ জিবি স্টোরেজের সুবিধা। এছাড়া redmi note 9 সিরিজের অন্যান্য ফোন পাওয়া যাবে অনেকটাই কম দামে।

mi led smart tv paoya jabe 1 hajar taka kom dame. onydike মি স্মার্ট ব্যান্ড ৪ পাওয়া যাবে মাত্র ১৮৯৯ টাকাতে. এমনকি redmi watch পাওয়া যাবে অনেক কম দামে। অর্থাৎ নতুন বছরে প্রজাতন্ত্র দিবস উপলক্ষে সুবিধা পাওয়া যাবে শাওমির এই সেল থেকে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।