নয়াদিল্লি: পয়লা এপ্রিল থেকে স্মার্টফোনের উপরে জি এস টি ১২ থেকে বেড়ে ১৮ শতাংশ হয়েছে। যার ফলে দামী হচ্ছে মোবাইল ফোন। টুইটারে এমনটা জানিয়েছেন জিওমি প্রধান মনু কুমার জৈন। আর সেই কারণেই বুধবার থেকে শাওমি, পোকো এবং রেড মি ফোনের দাম বাড়তে চলেছে। এর ফলে সামনে মোবাইল কিনতে হলে আগে দুবার চিন্তা করতে হবে মধ্যবিত্তদের।

এমনিতেই করোনা আতঙ্কের জেরে স্তব্ধ গোটা বিশ্ব। কিন্তু তারই মাঝে এই রকম একটি বিষয় সামনে আসাতে কিছুটা হলেও হতাশ সাধারণ মানুষজন। তবে শাওমি প্রধান জানিয়েছেন হার্ডওয়ার জিনিসের উপরে মাত্র ৫ শতাংশ লাভ রেখে তার সংস্থা বিক্রি করে। তাই জি এস টি বাড়াতে বাধ্য হয়ে দাম বাড়াতে হচ্ছে। তবে কোন কোন ফোনের দাম বাড়বে টা নিয়ে এখনও কিছু জানা যায়নি।

ইতিমধ্যে ফ্লিপকার্টে বেশ কিছু মোবাইলের দাম বাড়ার বিষয়টি চোখে পরেছে। ৬ জিবি র‍্যাম+১২৮ জিবি জিবি স্টোরেজ যুক্ত poco x2 ফোনের দাম যেখানে আগে ১৬,৯৯৯ ছিল সেখানে দাম বেড়ে নতুন দাম দাঁড়িয়েছে ১৭৯৯৯ টাকা। এছাড়াও redmi k20, k20 pro ফোনের দাম ২০০০ টাকা বেড়েছে। যা সাধারণের কাছে যথেষ্ট উদ্বেগের। কারণ আকের দিনে দাড়িয়ে স্মার্ট ফোনের উপরে অধিকাংশ মানুষ নির্ভরশীল। আর বেশীরভাগ মানুষ জন স্মার্ট ফোনের ক্ষেত্রে কেবল মত্র ব্যাটারি সফটওয়্যার এর উপরে গুরুত্ব দিয়ে থাকেন। সেখানে দাড়িয়ে মোবাইল ফোনের দাম বাড়াতে সাধারণের উপরে যে কিছুটা হলেও কোপ পড়বে টা নিশ্চিত ভাবে বলাই যায়।

এছাড়া অন্যান্য কোম্পানি এখনও পর্যন্ত বিস্তারিত ভাবে জানায় নি কোন কোন ফোনের দাম বাড়তে চলেছে। তাই কিছুটা হলেও ধোঁয়াশার মধ্যে রয়েছেন সাধারণ মানুষজন। জতক্ষন পর্যন্ত বিস্তারিত ভাবে না জানা যাবে ততক্ষণ বোঝা যাবে না কোন ধরনের ফোনের দাম বেড়েছে।

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা