বেজিং: শিকড় মজবুত করুন। অরুণাচল সীমান্তের পরিবারগুলিকে বার্তা দিলেন চিনের প্রেসিডেন্ট জি জিংপিং। তিব্বত ও অরুণাচল প্রদেশের সীমান্তে থাকা মেষপালকদের পরিবারকে এমন বার্তা দিয়েছেন তিনি।

চিনের নিরাপত্তার খাতিরেই এই পরিবারগুলি সীমান্তে স্থায়ীভাবে বসবাস শুরু করে। জি জিংপিং বলেন, ‘দেশে শান্তি না থাকলে কোটি কোটি পরিবার শান্তিপূর্ণ জীবন যাপন করতে পারবে না। গত সপ্তাহে দ্বিতীয় মেয়াদে আসে জি জিংপিং।

ওই কৃষক পরিবারটি বর্তমানে চিনের তিব্বতের স্বায়ত্বশাসিত অঞ্চলের লুনজি কাউন্টিতে বসবাস করছে। চিনের সঙ্গে ভারতের ৪,০৫৭ কিলোমিটার সীমান্ত রয়েছে। এর অনেক অংশ এখনও বিতর্কিত। বর্তমানে ভারতের অংশ অরুনাচল প্রদেশের একটি বড় অংশ চিন তার ভূখণ্ড বলে দাবি করে, যা চিনের ভাষায় দক্ষিণ তিব্বত নামে পরিচিত।

জানা গিয়েছে ‘দেশের ভূখণ্ড সুরক্ষায় ওই পরিবারের প্রচেষ্টাকে স্বীকৃতি দিয়েছেন চিনের প্রেসিডেন্ট। সীমান্ত এলাকায় থেকেও দেশের প্রতি তাদের আনুগত্য ও অবদানের জন্য তিনি ধন্যবাদও জানান। ‘
চিনা সেনাবাহিনীর সর্বোচ্চ সংস্থা সেন্ট্রাল মিলিটারি কমান্ডের প্রধান জি গত শনিবার ওই কৃষক পরিবাকে চিঠি পাঠান। বেইজিংয়ে কংগ্রেস চলাকালে ওই তিব্বতি পরিবারের দুই মেয়ে ঝিওগার ও ইয়াংজুম জি’কে চিঠি লিখেন। তারা কিভাবে বছরের পর বছর সীমান্ত এলাকা পাহারা দিয়ে রেখেছে এবং তাদের উপনগর গড়েছে সেই কাহিনী তুলে ধরে।