চেন্নাই: ভারতে এসে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে বৈঠক সারলেন চিনা প্রেসিডেন্ট জিংপিং। বৈঠক শেষে জানালেন, বন্ধুর মত কথাবার্তা হয়েছে দু’জনের। একেবারে হৃদয়ের সঙ্গে হৃদয়ের সংযোগ হয়েছে বলেও জানালেন তিনি। দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক নিয়ে আলোচনা হয়েছে দুই রাষ্ট্রনেতার।

শুক্রবার চেন্নাই তে মুখোমুখি বৈঠক হয় মোদী ও জিংপিং-এর। বাণিজ্য-অর্থনীতি উঠে আসে তাঁদের আলোচনায়। পাঁচ ঘণ্টা একসঙ্গে কাটান তাঁরা। একান্তে কথা কথা বলেন এক ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে।

ভারের আতিথেয়তার প্রশংসা করে জিংপিং বলেন, ‘আমার মনে হয় ভারত সরকার ও তামিলনাড়ু চিনের প্রতি বন্ধুত্বপূর্ণ মনোভাবই পোষণ করে। আমরা উচ্ছ্বসিত। এই অভিজ্ঞতা আমাদের জন্য অবিস্মরণীয় হয়ে থাকবে।’

উল্লেখ্য, চিনের প্রেসিডেন্টকে অভ্যর্থনা জানাতে তামিলনাড়ু উদ্যানপালন দফতর মহাবলীপুরমের এক অভিনব প্রবেশদ্বার তৈরি করে। এক সর্বভারতীয় সেই প্রবেশদ্বার তৈরি ১৮টি সবজি ও ফল দিয়ে। এই প্রবেশদ্বারটি তৈরি করা হয় চেন্নাই থেকে ৫৬ কিলোমিটার দূরের শহর মহাবলীপুরমের পঞ্চরথ মনুমেন্টের কাছে।

জানা গিয়েছে, ওই প্রবেশদ্বার তৈরি করেছেন উদ্যানপালন দফতরেরই ২০০ জনেরও বেশি কর্মী ও শিক্ষার্থী। টানা ১০ ঘণ্টা অক্লান্ত পরিশ্রম করে তাঁরা ওই প্রবেশদ্বার তৈরি করেছেন বলে জানা গিয়েছে। প্রবেশদ্বার তৈরি করতে যে ফল ও সবজি ব্যবহার করা হয়েছে সেগুলি তামিলনাড়ুরই বিভিন্ন কৃষকদের থেকে কেনা।

তবে শুধু এই প্রবেশদ্বারই নয়। চেন্নাই-সহ গোটা তামিলনাড়ুই আজ সুন্দর ভাবে সেজে উঠেছে। প্রসঙ্গত, বেলা ঠিক ১ টা বেজে ৫০ মিনিটে তামিলনাডুর চেন্নাই বিমানবন্দরে আসেন চিনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। তাঁকে আমন্ত্রণ জানাতে হাজির হয়েছিলেন চিনা কমিউনিটির সদস্য, স্কুলের বাচ্চারা এবং অসংখ্য সাধারণ মানুষ। বেলা ১২ টার পর থেকেই তাঁরা ভিড় জমিয়েছিল চেন্নাইয়ের আইটিসি গ্রান্ড হোটেল চত্বরে।