দেবনাথ মাইতি, মেদিনীপুর: ফের ভুল চিকিৎসার অভিযোগে উত্তেজনা ছড়াল মেদিনীপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে৷ এবার একজনের সিটি স্ক্যানের রিপোর্ট অন্যজনের ঘাড়ে চাপিয়ে দেওয়ার অভিযোগ।সেই ভুল রিপোর্টেই হয়েছে চিকিৎসা।

চিকিৎসায় গাফিলতি, ভুল চিকিৎসা, চিকিৎসক না থাকা, এমন একাধিক অভিযোগ লেগেই থাকে মেদিনীপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সঙ্গে। গত কয়েকদিন ধরে এই অভিযোগের পরিমান এক ধাক্কায় অনেকটাই বেড়ে গিয়েছে। এবার এক জনের সিটি স্ক্যানের রিপোর্ট নিয়ে অন্য জনের চিকিৎসা করার অভিযোগ উঠল এই হাসপাতালের ওপর।

- Advertisement -

রতন মোদক নামের চন্দ্রকোনার গোসাই বাজারের এক রোগী স্নায়ুর সমস্যা নিয়ে গত ১৭ মার্চ হাসপাতালে আসেন। ওই দিন চিকিৎসা করার পর তাকে সিটি স্ক্যান করে ছেড়ে দেওয়া হয়। পরদিন ১৮ তারিখ অবস্থার অবনতি হলে ফের হাসপাতালে নিয়ে এলে তাকে ভরতি করে নেওয়া হয়। এর পর হাসপাতালের সিটি স্ক্যান সেন্টারের রিপোর্ট ধরে চিকিৎসাও করা হয়। তার পর ছেড়ে দেওয়া হয়।

রতন মোদকের ছেলে গৌতম মোদকের অভিযোগ, রবিবার রাতে বাড়িতে গিয়ে তারা দেখেন স্ক্যান রিপোর্টে প্রিন্ট করা রমেশ দোলই এর নাম। যা দেখেই আতঙ্কিত হয়ে পড়েন গোটা পরিবার।

আজ সোমবার হাসপাতালে এসে হাসপাতাল সুপারের কাছে অভিযোগ দায়ের করেছে রতন মোদকের পরিবার৷
হাসপাতাল সুপার ডাঃ তমাল কান্তি পাঁজা অভিযোগ স্বীকার করে নিয়ে বলেন,এরকম একটা অভিযোগপত্র জমা পড়েছে৷ আমি নিজে দায়িত্ব নিয়ে তদন্ত করবো৷