নটিংহ্যাম: ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে অস্ট্রেলিয়ার জয়ে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালণ করা ন্যাথন কুল্টান-নাইল নিশ্চিত নন ভারতের বিরুদ্ধে বিশ্বকাপের পরবর্তী ম্যাচে প্রথম একাদশে জায়গা পাবেন কী না৷ বরং তিনি অবাক হবেন না যদি টিম ম্যানেজমেন্ট পরের ম্যাচে তাঁকে প্রথম একাদশ থেকে ছেঁটে ফেলে৷

ট্রেন্ট ব্রিজে একসময় ৭৯ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে কোণঠাসা হয়ে পড়া অস্ট্রেলিয়াকে ব্যাট হাতে অক্সিজেন দেন কুল্টার-নাইল৷ ৮টি চার ও ৪টি ছক্কার ৬০ বলে ৯২ রানের দুরন্ত ইনিংস খেলেন তিনি৷ মূলত তাঁর ব্যাটে ভর করেই অস্ট্রেলিয়া ২৮৮ রানে পৌঁছে যায়৷ শেষমেশ ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ১৫ রানের সংক্ষিপ্ত ব্যবধানে পরাজিত করে অজিরা৷

মিচেল স্টার্ক বল হাতে ৫ উইকেট নিলেও ম্যাচের সেরা হন কুল্টার-নাইল৷ দলকে জিতিয়ে উঠে অজি তারকা বলেন, তাঁর কাজ উইকেট নেওয়া৷ রান করার জন্য দলে নেওয়া হয়নি তাঁকে৷ তাই বল হাতে নজর কাড়তে ব্যর্থ হওয়ায় টিম ম্যানেজমেন্ট পরের ম্যাচে নাও খেলাতে পারে তাঁকে৷ ভারতের বিরুদ্ধে তাঁকে বাদ দেওয়া হলেও অবাক হওয়ার কিছু নেই৷

কুল্টার-নাইলের কথায়, ‘দু’জন বিশ্বমানের পেস বোলার সাইড লাইনে অপেক্ষা করে রয়েছে৷ রান করার জন্য আমাকে দলে নেওয়া হয়নি৷ আশা করি টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানরাই সেটা করবে৷ আমার কাজ হল উইকেট নেওয়া৷ প্রথম দু’ম্যাচে আমি একটিও উইকেট নিতে পারিনি৷ সুতরাং ভারতের বিরুদ্ধে পরের ম্যাচে যদি আমাকে বাদ দেওয়া হয়, তবে একটুও অবাক হব না৷’

ব্যাট হাতে সফল হলেও কুল্টার-নাইল বল হাতে নজর কাড়তে ব্যর্থ হন৷ ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে ১০ ওভারে ৭০ রান খরচ করেও কোনও উইকেট তুলতে পারেননি তিনি৷ তার আগে আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে ৮ ওভার বলে ৩৬ রান খরচ করেও উইকেটহীন থাকেন তিনি৷ সুতরাং প্রথম দু’ম্যাচে বল হাতে পুরোপুরি ব্যর্থ কুল্টার-নাইল৷

আফগানিস্তানকে ৭ উইকেটের একতরফা ব্যবধানে পরাস্ত করলেও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে জয়ের জন্য বেগ পেতে হয় অস্ট্রেলিয়াকে৷ ক্যারিবিয়ানদের বিরুদ্ধে একটা সময় হারের আশঙ্কা চেপে বসেছিল অজিদের ঘাড়ে৷ যদিও শেষমেশ বিপর্যয়ের মুখে পড়তে হয়নি তাদের৷ আগামী রবিবার কেনিংটন ওভালে ভারতের বিরুদ্ধে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে মাঠে নামবে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া৷ সাউদাম্পটনে ভারত দক্ষিণ আফ্রিকাকে পরাজিত করে বিশ্বকাপ অভিযান শুরু করেছে৷