চেন্নাই: বিশ্ব জুড়ে নানা ধরনের দামী জিনিসপত্র রয়েছে। যার আকাশ ছোঁয়া দাম শুনলে মাথায় হাত পড়ে যাবে। এই তো সদ্য নীতা অম্বানির একটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়। সেখানে তাঁর হাতে থাকা ব্যাগটির দাম আড়াই কোটি। অবশ্যই তার কিছু বিশেষত্ব রয়েছে, তাই এত দাম। এমনই হরেক জিনিস আছে, যার দাম গিনেস বুকে জায়গা করে নিয়েছে।

ঠিক যেমন, ভারতেই তৈরি হয়েছে এমন একটি শাড়ি, যা বিশ্বের সবথেকে দামি হিসেবে চিহ্নিত। গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে জায়গা করে নিয়েছে সেই শাড়িটি। মূলত নকশা, কাপড়ের মান, হাতের কাজ- এসবের উপরে নির্ভর করে একটি শাড়ির দাম। আর পৃথিবীর সবথেকে দামি এই শাড়িটির মূল্য প্রায় ৪০ লক্ষ টাকা। নির্দিষ্ট ভাবে বললে ৩৯ লক্ষ ৩১ হাজার ৬২৭ টাকা।

২০০৮ সালের ৫ জানুয়ারি দিল্লিতে এই শাড়িটি বিক্রি করা করা হয়েছিল। চেন্নাই সিল্ক সংস্থার তৈরি করা শাড়িটির নাম ‘দ্য চেন্নাই সিল্ক’। ইতিমধ্যেই গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ড-এর পক্ষ থেকে এই শাড়িটিকেই বিশ্বের সবথেকে দামি শাড়ির সম্মান দেওয়া হয়েছে।

শাড়িটির ওজন আট কেজি। এই শাড়িটিতে ৫৯ গ্রাম ৭০০ মিলিগ্রাম সোনা রয়েছে। হীরে রয়েছে ৩ ক্যারেটের উপরে। এছাড়াও ১২০ মিলিগ্রাম প্ল্যাটিনাম, ৫ গ্রাম রুপো, রুবি, পান্না, ক্যাটস আই, টোপাজ, মুক্তোর মতো দামি পাথর এবং ধাতু দিয়ে শাড়িটির নকশা তৈরি করা হয়েছে।

কুয়েতের এক অজ্ঞাতপরিচয় ব্যবসায়ীর অনুরোধেই শাড়িটি তৈরি করা হয়েছে। চেন্নাই সিল্কের ডিরেক্টর শিবলিঙ্গম নিজে ডিজাইন করেছেন। শাড়িটিতে বিখ্যাত শিল্পী রবি বর্মার আঁকা ছবিও বুনন করে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। সংস্থার ছত্রিশ জনেরও বেশি কর্মী এক বছর ধরে শাড়িটি তৈরি করেছিলেন। শাড়িটি তেরি করতে সময় লেগেছে প্রায় ৪,৭৬০ ঘণ্টা।

আট কেজি ওজন হলেও শাড়িটি পরলে নাকি এর ওজন বোঝাই যাবে না। শাড়িটি যারা তৈরি করেছেন, সেই চেন্নাই সিল্কের কর্তাদের দাবি এমনই।