নয়াদিল্লি: বিশ্বের সামনে নজির গড়ল ভারতীয় সেনা। এক-৪৭- এর বুলেটকেও আর ভয় নয়। একেবারে কাছাকাছি থেকে গুলি করলেও আর কোনও ক্ষতি হবে না। এমনই এক হেলমেট প্রকাশ্যে আনল ভারত। পৃথিবীতে এই প্রথম এমন হেলমেট প্রকাশ্যে আনা হল। ডিফেন্স এক্সপো-তে দেখানো হল সেই হেলমেট।

উত্তরপ্রদেশের লখনউ-তে সেই এক্সপো হচ্ছে। সেখানেই রাখা হয়েছে ওই হেলমেট। যার ওজন ১.৪ কেজি। ভারতীয় সেনার মিলিটারি ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ ওই হেলমেট তৈরি করেছে।

এই কলেজই তৈরি করেছে বিশ্বের সবথেকে সস্তা গানশট লোকেটর। ৪০০ মিটার দূর থেকে যে কোনও বুলেট খুঁজে বের করতে পারবে এই লোকেটর। যার ফলে, জঙ্গিদের নিকেশ করা অনেক সহজ হবে। বেসরকারি সংস্থার সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে এই মেশিন বানানো হয়েছে।

বিশ্বের কয়েকটি শীর্ষস্থানে থাকা ডিফেন্স এক্সপো-র মধ্যে ভারতেরটা অন্যতম। এবছর ওই এক্সপো-তে জায়গা করে নিয়েছে ১৫০টি সংস্থা ও হাজারেরও বেশি ডিফেন্স ম্যানু্ফ্যাকচারার।

শুক্রবার প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং জানিয়েছেন, এবছর এখনও পর্যন্ত ২০০টি মৌ স্বাক্ষর হয়েছে এই এক্সপো-তে। এই এক্সপো-র সাফল্য নজিরবিহীন বলে জানিয়েছে প্রতিরক্ষামন্ত্রক। ২০১৮-১৯ অর্থবর্ষে ১০,৭৪৫ কোটি টাকার রফতানি হয়েছে এই এক্সপো থেকে, যা ২০১৬-১৭-র থেকে সাত গুন বেশি।

তবে, মোদী সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকেই প্রতিরক্ষা বাজেট বরাদ্দ বরাবরই নজর কেড়েছে। কিন্তু এবার তার ব্যতিক্রম। নজর কাড়েনি প্রতিরক্ষা বাজেট।

এবার বরাদ্দ হিসেবে ধরা হয়েছে মাত্র ৩.৩৭ লক্ষ কোটি টাকা, যা গত বছরের তুলনায় মাত্র ৬ শতাংশ বেশি। প্রতিরক্ষা দফতরের পেনশন তহবিল বাবদ বরাদ্দের অংশ বাদ দিলে এ বছরের বাজেটে অন্তর্ভুক্ত হয়েছে আধুনিকীকরণের জন্য মাত্র ১.১৩ লক্ষ কোটি টাকা। এর ফলে একাধিক প্রকল্পে সমস্যা হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.