স্টাফ রিপোর্টার, তমলুক: ২৭ মার্চ আন্তর্জাতিক নাট্য দিবস৷ সেই উপলক্ষে মহিষাদল শিল্পকৃতির ২৫ তম বর্ষে নাট্যোৎসবের অঙ্গ হিসাবে বুধবার আন্তঃবিদ্যালয় নাট্য প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়৷ এই নাট্য প্রতিযোগিতার লক্ষ্য শৈশব থেকে নাট্যচর্চার বিকাশ ঘটানো৷

এই প্রতিযোগিতায় মোট আটটি স্কুল অংশগ্রহণ করে৷ স্কুলগুলি হল হলদিয়ার হাতিবেড়িয়া অরুণ চন্দ্র হাই স্কুল, তাদের নাটক ঠকারাম ঠগবাজ৷ বাজিতপুর সারদামণি বালিকা বিদ্যালয়, নাটক বসুসেন৷ জয়নগর হাই স্কুল তাদের নাটক অর্থ ব্যাঘ্র কথা৷ রামভদ্রপুর তপশিলী প্রাথমিক বিদ্যালয়, নাটক আরনারব৷ খঞ্চি গুণধর আদর্শ বিদ্যাপীঠের নাটক সমাধান৷ বহিচাড় বিপিন শিক্ষানিকেতন, তাদের নাটক যাদুর তুলি৷ বল্লুক বীণাপাণি উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের নাটক মাদার৷ হলদিয়া গভর্নমেন্ট স্পন্সর উচ্চমাধ্যমিক বিদ্যালয়, নাটক একটা সবুজ দেশ ছিল।

মহিষাদল শিল্পকৃতির আয়োজিত আন্তঃবিদ্যালয় নাট্য প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান দখল করেছে হলদিয়ার হাতিবেড়িয়া অরুণ চন্দ্র হাই স্কুল৷ দ্বিতীয় সুতাহাটার বাজিতপুর সারদামণি বালিকা বিদ্যালয়৷ তৃতীয় স্থান অধিকার করেছে বল্লুক বীণাপাণি উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়৷ চতুর্থ বহিচাড় বিপিন শিক্ষানিকেতন এবং পঞ্চম স্থান দখল করেছে জয়নগর হাই স্কুল।

প্রথম দ্বিতীয় ও তৃতীয়কে ট্রফি, প্রশংসাপত্র সহ তিন হাজার, দু হাজার ও এক হাজার টাকা পুরস্কার হিসেবে দেওয়া হয়। সেই সঙ্গে চতুর্থ ও পঞ্চম স্থান দখলকারীদের ট্রফি, প্রশংসাপত্র সহ পাঁচশত করে টাকা দেওয়া হয়। মহিষাদল শিল্পকৃতি সংস্থার কর্ণধার সুরজিৎ সিনহা জানান, পড়াশোনার পাশাপাশি শিশুদের নাট্যচর্চার প্রয়োজন রয়েছে। তাই জেলার বিভিন্ন স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের নিয়ে সংস্থা সারা বছর ধরে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করে থাকে। বুধবার প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের নাটক নিয়ে প্রতিযোগিতার ব্যবস্থা করা হয়। সেখানে সমস্ত স্কুল তাদের নাটক পরিবেশন করে দর্শকদের মন কেড়ে নিয়েছে।