স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: আসন্ন লোকসভা ভোটের আগে ফের অস্থায়ী শ্রমিকদের বেতন বৃদ্ধির দাবিতে বুধবার দিনভর বন্ধ রইল পুরপরিষেবা। এই ঘটনা উত্তর ২৪ পরগনার বারাকপুর পুরসভার। পুরসভার ২৪টি ওয়ার্ডেই সাফাই কাজ বন্ধ রেখে আন্দোলনে সামিল হন শতাধিক অস্থায়ী পুরকর্মী।

ঘটনার জেরে বুধবার সকাল থেকে দফায় দফায় বারাকপুর পুরসভার গেটের সামনে বিক্ষোভ দেখান পুরকর্মীরা। আন্দোলনকারী পুরসভা কর্মীদের অভিযোগ, বারাকপুর পুরসভার চেয়ারম্যান উত্তম দাস তাঁদের বেতন বৃদ্ধির আশ্বাস দিয়ে ছিলেন৷ তিনি বলেছিলেন সাফাই কর্মীদের সকলের বেতন বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত ২রা এপ্রিল জানিয়ে দেওয়া হবে। কিন্তু সেই সিদ্ধান্ত জানায়নি উত্তম বাবু।

আরও পড়ুন : ব্রিগেড যেন ‘সচ্চা’ ভারতীয় হয়ে দিল্লি দখলে’র মঞ্চ

সেই কারনে বুধবার থেকে ফের আন্দোলনে সামিল হয়েছে বারাকপুর পুরসভার শতাধিক অস্থায়ী সাফাই কর্মী। সাফাই কর্মীরা বলেন, এই পুরসভায় ৬০০ জনেরও বেশি সাফাই কর্মী আছে। সকলেরই দৈনিক মজুরি ২১০ টাকা, এই টাকায় সংসার চলে না। আমাদের বেতন অবিলম্বে বাড়িয়ে দৈনিক ৩৫০ টাকা করতে হবে। দৈনিক মজুরি না বাড়ালে আন্দোলন চলবে।

এদিকে বারাকপুর পুরসভার পুরপ্রধান উত্তম দাস বলেন, “এখন নির্বাচনী আচরণবিধি লাগু আছে। ফলে কোন ঘোষনা আমরা করতে পারব না। নির্বাচন পর্ব মিটলে শ্রমিকদের সঙ্গে আলোচনা করে নিশ্চয়ই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। শ্রমিকরা শীঘ্রই কাজে যোগ দেবে। প্রত্যেক বছরের মত এবারও ওদের পক্ষেই কাউন্সিলরদের নিয়ে মিটিং করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। “

আরও পড়ুন : মোদীর জন্যে এয়ারপোর্টে ৪০ মিনিট ধরে বসে থাকলেন মমতা

বুধবার দিনভর বারাকপুর পুরসভা এলাকায় সাফাই কাজ না হওয়ায় এলাকায় জঞ্জাল জমে গিয়েছে৷ বারাকপুর পুরসভার স্থানীয় নাগরিকরা চাইছেন, অবিলম্বে এলাকা পরিষ্কার হোক, জঞ্জাল মুক্ত পরিবেশ তৈরী হোক বারাকপুর শহর এলাকায়।