স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন তৃণমূল কংগ্রেস সরকারের গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্প হল স্বাস্থ্যসাথী বীমা প্রকল্প। এই বীমা প্রকল্পের আওতাভুক্ত দরিদ্র নাগরিকরা অসুস্থ হলে সরকারি বা বেসরকারি হাসপাতালে সপরিবারে পাঁচ লক্ষ টাকা পর্যন্ত সরকারি সহযোগিতায় সুচিকিৎসার সুযোগ পাবে।

উত্তর ২৪ পরগণার গারুলিয়া পুরসভা এলাকায় প্রথম পর্যায়ে স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের অন্তর্ভুক্ত হয়েছে আবেদনকারীদের ৮০ শতাংশ পরিবার।

গারুলিয়া পুরসভা অফিসে স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের আওতাভুক্ত প্রত্যেক নাগরিককে ছবি তুলে, আঙুলের ছাপ নিয়ে হাতে সঙ্গে সঙ্গে দিয়ে দেওয়া হচ্ছে এই প্রকল্পের কার্ড। স্বাস্থ্যসাথী বীমা প্রকল্পের কার্ড সঙ্গে সঙ্গে হাতে পেয়ে খুশি এলাকার নাগরিকরা৷

গারুলিয়া পুরসভা এলাকায় স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পে আবেদনকারী ৩৫০০ টি পরিবারের মধ্যে প্রথম পর্যায়ে ২৮০০ টি পরিবারের হাতে রাজ্য সরকারি এই প্রকল্পের কার্ড তুলে দেওয়া হয়েছে। নাগরিকদের সুবিধার্থে স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পের কার্ডের সঙ্গেই প্রত্যেককে দেওয়া হচ্ছে বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালের তালিকাও৷ যেখানে গিয়ে এই বীমা প্রকল্পের কার্ড দেখালে নাগরিকরা পাঁচ লক্ষ টাকা পর্যন্ত চিকিৎসার খরচ পাবেন।

রাজ্য সরকারের এই প্রকল্পের আওতায় থাকছে স্বনির্ভর গোষ্ঠীতে কর্মরত নাগরিকদের পরিবার৷ বিভিন্ন বেসরকারি সংস্থায় কর্মরত চুক্তি ভিত্তিক শ্রমিকদের পরিবারের সদস্যরা৷ এমনকি পুরসভার চুক্তিভিত্তিক শ্রমিকদের পরিবারের সকল সদস্যরাও। এই প্রকল্পের সুবিধা যাতে দ্রুত পেতে পারে তা রূপায়নের কাজ করছে গারুলিয়া পুরসভা কর্তৃপক্ষ৷