বার্মিংহ্যাম: ক্রিকেটপ্রমীদের জন্য ভালো খবর! অবশেষে কমনওয়েলথ গেমসে স্থান পেলে ক্রিকেট৷ বার্মিংহ্যামে ২০২২ কমনওয়েলথ গেমসে অন্তর্ভুক্ত হল মহিলাদের টি-২০ ক্রিকেট৷ মঙ্গলবার এই ঘোষণা করে কমনওয়েলথ গেমস ফেডারেশন৷ কমনওয়েলথ গেমেসের আসর বসবে ২০২২-এর ২৭ জুলাই থেকে ৭ অগস্ট৷

১৯৯৮-এর পর ফের কমনওয়েলথ গেমসে ফিরল ক্রিকেট৷ কুয়ালা লামপুরে ১৯৯৮ কমনওয়েলথ গেমসে প্রথম অন্তর্ভুক্ত হয়েছিল ক্রিকেট৷ সেটা ছিল ৫০ ওভারের ফর্ম্যাট৷ সেবার সোনা জিতেছিল দক্ষিণ আফ্রিকা৷ খেলেছিলেন সচিন তেন্ডুলকর, রিকি পন্টিং ও জাক ক্যালিসের মতো কিংবদন্তি ক্রিকেটাররা৷ ২৪ বছর পর ফের কমনওয়েলথ গেমেসে দেখা যাবে বাইশ গজের লড়াই৷ মহিলাদের টি-২০ লড়াই হবে আট দলের৷ প্রতিটি ম্যাচ হবে এজবাস্টানে৷

আইসিসি-র তরফে সিজিএফ-এর এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানানো হয়৷ আইসিসি-র চিফ একজিকিউটিভ মানু সহনি এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানান,‘মহিলা ক্রিকেটের কাছে এটি একটি ঐতিহাসিক মুহূর্ত৷ আমরা একত্রিত হয়ে কমনওয়েলথ গেমসে ক্রিকেটের জন্য দরবার করেছিলাম৷ মহিলা ক্রিকেট দিনের পর দিন আরও শক্তিশালী হচ্ছে৷ ২০২২ বার্মিংহ্যাম কমনওয়েথ গেমেসে মহিলা টি-২০ ক্রিকেটের অন্তর্ভুক্তিতে আমরা দারুণ খুশি৷’

আইসিসি-র সিইও আরও বলেন, ‘প্রথমত টি-২০ ফর্ম্যাট কমনওয়েলথ গেমেসের জন্য আদর্শ৷ বিশ্বের দরবারে মহিলা ক্রিকেটকে ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য এর থেকে ভালো আর কিছু হতে পারে না৷ ২০২২ কমনওয়েলথ গেমেসে যারা খেলবে তাদেক কাছে, এটা হবে অসাধারণ অভিজ্ঞতা৷

ইসিবি-র চিফ একজিকিউটিভ টম হারিসন, ‘আমরা দারণ খুশি যে, বার্মিংহ্যামে ২০২২ কমনওয়েথ গেমসে মহিলাদের টি-২০ ক্রিকেট অন্তর্ভুক্ত হয়েছে৷ কমনওয়েলথ গেমসের ইতিহাসে এটা মহিলাদের কাছে সেরা প্যারা স্পোর্ট প্রোগ্রাম৷’

কমনওয়েলথ গেমস ফেডারেশন প্রেসিডেন্ট ড্যামে লুইস মার্টিন বলেন, ‘কমনওয়েলথ গেমসকে ক্রিকেটের কামব্যাককে স্বাগত জানাচ্ছি৷ এটা ঐতিহাসিক দিন৷ আমরা বিশ্বাস করি, কমনওয়েলথ গেমেসে মহিলা টি-২০ ক্রিকেট সারা বিশ্বে নিজেদের মেলে ধরবে৷ এটা ওদের জন্য দারণ প্ল্যাটফর্ম৷’