স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: আন্তর্জাতিক নারী দিবস৷ এই নারী দিবসের দিনই পুরোদস্তুর লোকসভা ভোটের প্রচার শুরু করে দিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ ২০১৬ বিধানসভা নির্বাচনের আগেও ঠিক একইভাবে ভোটের প্রচার শুরু করেছিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো৷ ২০১৯-এর লোকসভাতেও সেই রীতি বজায় রইল৷

শুক্রবার মহিলা তৃণমূল সেলের ব্যানারে শ্রদ্ধানন্দ পার্ক থেকে ডোরিনা ক্রসিং পর্যন্ত মিছিলে হাঁটেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ মিছিলে মহিলাদের নিয়ে রাজ্য সরকারের একাধিক উন্নয়নমূলক প্রকল্প তুলে ধরা হয়৷ বাংলাই যে মহিলাদের জন্য সবচেয়ে বেশি ভেবেছে ও কাজ করেছে মিছিলের ব্যানারের মধ্যে দিয়ে তা তুলে ধরা হয়৷আমর্হাস্ট স্টিট, বউবাজার, এসএন ব্যানার্জি রোড ধরে ডোরিনা ক্রসিং-এ শেষ হওয়ার কথা ছিল মিছিল৷ কিন্তু হঠাৎই সুবোধ মল্লিক স্কোয়ার থেকে রুট বদল করে মিছিল বাঁক নেয় লেনিন সরণির দিকে৷ ধীরে ধীরে মিছিল পৌঁছোয় ধর্মতলায়৷

আরও পড়ুন: মোদী হঠাতে বাম স্লোগানেই ভরসা মমতার

সেখানে অস্থায়ী মঞ্চ বেঁধে বক্তৃতা দেন তৃণমূল সুপ্রিমো৷ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এদিন দাবি করেন, ‘‘সংসদে একমাত্র এরাজ্যেরই ৩৫ শতাংশ সাংসদ মহিলা৷’’ পাশাপাশি এদিন তিনি প্রতিশ্রুতি দেন, ‘‘আগামীদিনে এরাজ্য থেকে সংসদে তৃণমূল কংগ্রেসের তরফে যাতে ৩৫ শতাংশের বেশি মহিলা সদস্য পাঠানো যায় তা দেখবে দল৷’’

আগেই তৃণমূলের মহিলা সেলের নেত্রী তথা রাজ্যের মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য জানিয়েছিলেন, নারী দিবসের মিছিলে রাজ্য সরকারের কন্যাশ্রী, রুপশ্রী, স্বাস্থ্যসাথী যেসব প্রকল্পগুলি রয়েছে তা তুলে ধরা হবে৷ সেই মতই, মমতা এদিন জানান, ‘‘কন্যাশ্রী বিশ্বসেরা হয়েছে৷ স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পে পরিবারের প্রধান হিসেবে নারীকে গুরুত্ব দিয়েই স্মার্টকার্ড প্রদান করবে সরকার৷’’

আরও পড়ুন: নারী দিবস: বিমানবন্দরের ‘ফায়ার ফাইটার’ প্রথম মহিলা অফিসার তানিয়া

শুধু তাই নয়, এদিন নারীদের অধিকার নিয়ে বিজেপি সরকারকেও আক্রমণ করতে ভোলেননি তৃণমূল কংগ্রেস সুপ্রিমো৷ স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতেই বিজেপিকে দুষেছেন মমতা৷ নারী ক্ষমতায়ণে আরও একধাপ এগিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘নারীদের নিয়ে ভাবেনি কেন্দ্র৷ ভেবেছি আমরা৷ আগামীতে আরও ভাবার সুযোগ রয়েছে৷ নারীরাই
জয় করবে গোটা বিশ্ব৷ ’’

এছাড়াও এদিন মমতা রাফাল ইস্যু, কাশ্মীর প্রসঙ্গ টেনে বিজেপিকে আক্রমণ করেন৷ এককথায় মমতা এদিন বোঝানোর চেষ্টা করেন, দেশের জন্য ক্ষতিকারক প্রধানমন্ত্রীর বিদায়আসন্ন৷ আর তাই প্রধানমন্ত্রীকে এদিন তিনি আবারও‘চোর’ বলে আখ্যায়িত করেন৷