নয়াদিল্লি: লোকসভা নির্বাচনের আগে আরও এক ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত নিলেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী নির্মলা সীতারামণ। প্রথমবার মিলিটারি পুলিশে মহিলা নিয়োগ করার সিদ্ধান্তের কথা জানালেন তিনি। শুক্রবার বিজেপির ট্যুইটার হ্যান্ডলে এই ঘোষণার কথা জানানো হয়েছে।

পার্সোনেল বিলো অফিসার র‍্যাংকে নিয়োগ করা হবে মহিলা। ট্যুইটে উল্লেখ করা হয়েছে যে এই পদক্ষেপ আসলে মহিলা ক্ষমতায়ণের পথে আরও একধাপ এগিয়ে যাওয়া।

প্রতিরক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন, সেনাবাহিনীতে মহিলাদের অবস্থান আরও জোরালো করতে এই ঐতিহাসিক পদক্ষেপ নিল সরকার। ক্রমে ক্রমে হবে এই নিয়োগ। মিলিটারি পুলিশের ২০ শতাংশই হবে মহিলা। মূলত ধর্ষণ বা শ্লীলতাহানির মত ঘটনায় এই বাহিনীর বিশেষ ভূমিকা থাকবে।

গত বছর স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে ভারতীয় সেনার মহিলা অফিসারদের জন্য বিশেষ ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। স্থলসেনার পুরুষ ও মহিলা সদস্যদের মধ্যে আর কোনও ফারাক নেই।

দীর্ঘদিনের ধরেই এই দাবি ছিল মহিলা অফিসারদের তরফে। সেই দাবি মেনে নিয়েই, প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা করেন, মহিলা সেনা অফিসারদের পার্মানেন্ট কমিশনের অন্তর্ভুক্ত করে নেওয়ার কথা। এর আগে পর্যন্ত তাঁরা শর্ট সার্ভিস কমিশনের আওতায় ছিলেন।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.