আহমেদাবাদ: ভিডিওটা ভাইরাল হতেই বিপাকে পড়েছেন বিজেপি বিধায়ক বলরাম থাওয়ানি৷ ভিডিওতে পরিষ্কার দেখা গিয়েছে এক এনসিপি মহিলা কর্মীকে বেধড়ক লাথি মারছেন তিনি৷ এনসিপি নেত্রী নীতু তেজওয়ানি স্থানীয় এক সমস্যা নিয়ে বিধায়কের কাছে যান৷

নীতুর অভিযোগ ওই বিধায়ক তা শুনতে চাননি৷ উলটে তাঁকে থাপ্পড় মারেন৷ আচমকা চড় মারায় মাটিতে পড়ে যান তিনি৷ তখনই মাটিতে ফেলে লাথি মারতে থাকেন ওই বিধায়ক৷ গুজরাতের নারোদায় ঘটে যাওয়া এই ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হয়েছে৷ স্বাভাবিকভাবেই বেশ বিপাকে পড়েছেন অভিযুক্ত বিধায়ক৷

ইতিমধ্যেই বিধায়কের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই নেত্রী৷ তারপর বিজেপি শাসনের সুফল নিয়ে প্রশ্ন তোলেন নীতু৷ তিনি বলেন বিজেপি জমানায় কতটা সুরক্ষিত মহিলারা৷ সরাসরি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে নিশানা করে তাঁর প্রশ্ন মোদীজী নারী নিরাপত্তা নিয়ে কী ভাবছেন, কতটা কাজ করেছেন? ওরা শুধু আমাকেই মারেনি৷ আমার স্বামীকেও লাথি মেরেছে৷

অন্যদিকে, নিজের ভুল স্বীকার করেছেন অভিযুক্ত বিধায়ক থাওয়ানি৷ তিনি বলেন ওই মহিলার কাছে ক্ষমাপ্রার্থী তিনি৷ আচমকা কাজটা করে ফেলেছেন তিনি বলে সাফাই তাঁর৷ নিজের ভুল স্বীকার করে তিনি বলেন গত ২২ বছর ধরে রাজনীতি করছেন তিনি৷ কখনও মহিলাদের অসম্মান করেননি৷ এরকম ঘটনাও কখনও ঘটেনি৷

পরে রবিবারের ঘটনার ব্যাখ্যা সংবাদ মাধ্যমকে দিয়েছেন থাওয়ানি৷ তিনি বলেন প্রায় ৪০-৫০ জন মহিলা ও ২০-২৫ জন পুরুষ তাঁর অফিসে আসেন৷ তাঁদের চা-কফির ব্যবস্থা করেন তিনি৷ সেখানেই ওই দলটি জলের সমস্যার কথা তোলেন৷ থাওয়ানির দাবি রবিবার তাঁর দফতর বন্ধ বলে তিনি তাঁদের সোমবার আসতে অনুরোধ করেন৷ কিন্তু তাঁরা মানতে চাননি৷ বচসা শুরু হয়৷

থাওয়ানির গায়ে হাত তোলা হয় বলে অভিযোগ বিধায়কের৷ তারপরেই ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন তিনি৷ আলোচনার বদলে মারামারি শুরু হয়৷ সেখানেই এই অনভিপ্রেত ঘটনাটি ঘটে যায় বলে জানিয়েছেন ওই বিধায়ক৷ তাঁর সাফাই, ওই মহিলাকে ইচ্ছাকৃত ধাক্কা মারেননি তিনি৷ নিজেকে বাঁচাতে গিয়েই ধাক্কা লেগেছে৷ ওই মহিলার গায়ে অনিচ্ছাকৃত ভাবেই লাথি লেগে গিয়েছিল৷ সেটাই ভিডিও করা হয়েছে৷