প্রকাশ্যে বোরখা পরা মহিলার গুলিতে নিহত ধর্মীয় নেতা

ইসলামাবাদ: ধর্ম অবমাননার অভিযোগে এবার পাকিস্তানে এক শিয়া মুসলিমকে খুন করা হল৷ অভিযোগ, বোরখা পরা তিন মহিলা ওই ব্যক্তিকে খুন করেছে। বিবিসি, রয়টার্স সহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম জানাচ্ছে এখবর৷ ঘটনাস্থল শিয়ালকোট৷

নিহত ব্যক্তির নাম ফজল আব্বাস৷ তিনি শিয়ালকোটের শিয়া মুসলিমদের নেতা ও আধ্যাত্মিক ধর্মীয় গুরু হিসেবে পরিচিত। তাঁর বিরুদ্ধে ২০০৪ সালে ইসলামকে অবমাননা করার অভিযোগ আনা হয়েছিল। এরপর তিনি পাকিস্তান ছেড়ে পালিয়ে ডেনমার্কে আশ্রয় নিয়েছিলেন। সম্প্রতি আবার পাকিস্তানে ফিরে এসেছিলেন৷

বৃহস্পতিবার বোরখা পরা তিন মহিলা ফজল আব্বাসের কাছে আসেন। তারা ফজল আব্বাসকে তাদের জন্য দোয়া করতে বলেন। দোয়া করার সময় একজন মহিলা পিস্তল বের করে সোজা ওই ধর্মীয় নেতার বুকে গুলি করে৷ ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় ধর্মীয় নেতার৷

- Advertisement -

শিয়ালকোটের পুলিশ জানিয়েছে, তিন মহিলার সঙ্গে কোনও ধর্মীয় গোষ্ঠীর সম্পর্ক খুঁজে পাওয়া যায়নি ৷ যদিও নিহত ধর্মীয় গুরু ফজল আব্বাসের পরিবারের অভিযোগ, ওই তিন মহিলা একটি কট্টরপন্থী ধর্মীয় গোষ্ঠীর সঙ্গে জড়িত৷ সংগঠনের নির্দেশে তারা খুন করেছে৷ নিহত ফজল আব্বাসের আত্মীয়রা জানিয়েছেন, ধর্ম অবমাননার অভিযোগ থেকে নিজেকে নির্দোষ প্রমাণের জন্যই তিনি দেশে ফিরেছিলেন। এই মামলায় জামিন পেয়েছিলেন৷

১৯৯০ সাল থেকে চলতি বছর পর্যন্ত পাকিস্তানে অন্তত ৬৬ জনকে ধর্ম অবমাননার অভিযোগে খুন করা হয়েছে৷ এমনই জানাচ্ছে সেন্টার ফর রিসার্চ এন্ড সিকিউরিটি স্টাডিজ বলে একটি প্রতিষ্ঠান। পাকিস্তানে ধর্ম অবমাননার বিরুদ্ধে যে আইন আছে তাতে সর্বোচ্চ শাস্তি হচ্ছে মৃত্যুদণ্ড। বিভিন্ন সময়ে পাক সংখ্যালঘুরা এই আইনের শিকার হন বলে অভিযোগ৷

All rights reserved by @ Kolkata24x7 II প্রতিবেদনের কোন অংশ অনুমতি ছাড়া প্রকাশ করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ
-