ভোপাল: ভয়ঙ্কর ঘটনা ঘটল মধ্যপ্রদেশের শিবপুরী জেলায়। নদীতে জল পান করতে গিয়ে কুমিরের কবলে পড়লেন এক মহিলা। তার হাত কামড়ে নিয়েছে কুমিরটি।

জানা যাচ্ছে, মাঠে কাজ করছিলেন ওই মহিলা। তৃষ্ণার্ত বোধ করায় কাছের সিন্ধু নদীতে জল পান করতে গিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু ভাগ্যের ফেরে সেখানে বসেছিল ক্ষুধার্ত কুমির। মুহূর্তের মধ্যেই সেটি ওই মহিলাকে আক্রমণ করে। বিপদ বুঝতে অনেক দেরি করে ফেলেছিলেন মহিলা। কুমিরে ছিঁড়ে নিয়েছে তার অর্ধেক হাত! কনুইয়ের থেকে আর নেই নীচের অংশ।

ওই মহিলার ছেলে জানিয়েছে, তাঁর মা খামারে কাজ করছিলেন। তৃষ্ণার্ত বোধ করায় নদীতে জল পান করতে যেতেই এক কুমির তাঁর মাকে আক্রমণ করে এবং হাতের আধখানা নিয়ে যায়। তিনি আরও জানিয়েছেন, যে তাঁর মামা ঘটনা দেখেই অন্য সবাইকে ডাকে ও পাথর ছুঁড়ে কুমিরটিকে তাড়িয়ে দেয়। এরপরেই গুরুতর আহত অবস্থায় তাঁর মাকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়।

মহিলার ভাই জানিয়েছেন, তিনি বোনকে কুমিরের সঙ্গে লড়াই করতে দেখে ছুটে আসেন। এরপর সবাই মিলে কুমিরটিকে তাড়িয়ে দেয়া হয়। কিন্তু ততক্ষণে হাতের আধখান খেয়ে ফেলেছে কুমির।

জেলা হাসপাতালে মহিলার চিকিত্সা করা সার্জন পঙ্কজ গুপ্তা বলেছেন, হাতের অর্ধেক আলাদা হয়ে গেছে ফলে প্রচুর রক্ত বেরিয়েছে। তবে ওই মহিলা এখন বিপদের বাইরে আছেন।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ