ছবি- প্রতীকি

ভোপাল: ফের এক ভয়াবহ ধর্ষণের ঘটনা প্রকাশ্যে এল। এক মহিলাকে ধর্ষণ করে সেই ঘটনার ভিডিও রেকর্ড করে অভিযুক্ত। এখন সেই ভিডিও প্রচারের ভয় দেখিয়ে টাকা চাওয়া হচ্ছে ওই মহিলার কাছে। এমনই অভিযোগ জানিয়েছেন মাইক্রো-ফিনান্স সংস্থার কর্মী ওই মহিলা।

অভিযুক্তের নাম পারভেজ। অভিযোগকারিণী জানিয়েছেন, তাঁকে মিথ্যা অজুহাতে নিজের বাড়িতে নিয়ে যায় ওই ব্যক্তি। তাঁকে বলা হয়েছিল, এক মহিলা লোম নিতে চান। তাঁর সঙ্গে কথা বলিয়ে দেওয়ার নাম করেই ডেকে পাঠানো হয়েছিল ওই মহিলাকে। পুলিশ জানিয়েছে, অভিযোগের ভিত্তিতে শনিবার ওই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। জেল হেফাজতে রাখা হয়েছে তাকে। ব্ল্যাকমেল করে গত ছ’মাস ধরে মহিলার কাছ থেকে ২ লক্ষ টাকা নিয়েছে ওই ব্যক্তি। ভিডিওটি অনলাইনে লিক করে দেওয়ার হুমকি দিয়েই ওই টাকা নেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ।

অভিযোগকারিণী আরও জানিয়েছেন, গত জুন মাসে পিপলানির বাড়িতে ডাকার জন্য ফোন করে পারভেজ। ওই মহিলা বাড়িতে গিয়ে দেখেন, সেখানে পারভেজ ছাড়া আর কেউ নেই। এরপরই ধর্ষণ করা হয় ওই মহিলাকে। পুরো ঘটনার ভিডিও রেকর্ডও করা হয়। এরপরই শুরু হয় টাকা চাওয়া। এমনকি একটি বাইক কিনে তার ইএমআই দিতেও বাধ্য করে ওই মহিলাকে। টাকা দিতে দিতে দেওয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়ায় অবশেষে পুলিশের কাছে অভিযোগ জানাতে বাধ্য হন ওই মহিলা।