পাটনা: ইসলাম গ্রহণ না করলে নগ্ন ভিডিও প্রকাশ করে দেওয়া হবে। এই ভয় দেখিয়ে চলছিল হিন্দু মহিলাকে ধর্মান্তরের চেষ্টা। নির্যাতন চরমে পৌঁছালে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন ওই মহিলা। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে তাঁর শ্বশুরবাড়ির দু’জনকে আটক করেছে পুলিশ।

ঘটনাটি ঘটেছে বিহারের গান্ধী ময়দান থানা এলাকায়। কলকাতার ওই হিন্দু মহিলা প্রেমের সম্পর্কে আবদ্ধ হয়ে বিয়ে করেছিলেন পাটনার ফুলওয়ারির বাসিন্দা আসিফের সঙ্গে। সম্পর্ককে সামাজিক মান্যতা দিতে বিয়েও করেছিলেন। কিন্তু, তারপর থেকেই দুঃসময় ঘনিয়ে আসে তাঁর জীবনে। ওই মহিলার শ্বশুরবাড়ির দাবি ছিল, ‘মুসলিম পরিবারে বিয়ে করে ইসলাম ধর্ম না মানলে চলবে না’, ধর্মান্তরিত হতেই হবে। অভিযোগ, বিয়ের পরে একমাস তাঁকে জোর করে মাদ্রাসায় থাকতে বাধ্য করে স্বামী ও পরিবারের লোকেরা। ইসলাম ধর্ম শিক্ষা এবং গো-মাংস খেতেও তাঁকে বাধ্য করা হয়েছিল ওই মাদ্রাসায়। মাদ্রাসা থেকে বাড়ি ফিরলেও কাটেনি নরক যন্ত্রণা। গো-মাংস না খেলে তাঁর একটি নগ্ন ভিডিও প্রকাশ করে দেওয়ার হুমকি দেয় তাঁর শ্বশুরবাড়ির লোকেরা।