শিকাগো: বাথরুমে লুকনো ছিল ক্যামেরা। সেই ক্যামেরাতেই বন্দি হয়ে গিয়েচিল স্নানের দৃশ্য। আর সেই ফুটেজ আপলোড হয়ে যায় বিভিন্ন পর্ন সাইটে। এরপরই ভ্রমণ সংস্থার বিরুদ্ধে ১০০ মিলিয়ন ডলারের মানহানির মামলা করলেন এক মহিলা।

২০১৫-র জুলাইতে নিউ ইয়র্কের অ্যালব্যানিতে ঘটেছিল সেই ঘটনা। বিলাসবহুল হোটেল চেন হিলটন ওয়ার্ল্ডওয়াইডের হ্যাম্পটন ইন অ্যান্ড স্যুটসে ঘটে। আইনের স্নাতক ওই মহিলা পরীক্ষা দিতে অ্যালব্যানি গিয়েছিলেন এবং ওই হোটেলে ছিলেন। নিজের রুমের শৌচাগারে তাঁর স্নানের দৃশ্য গোপন ক্যামেরায় তোলা হয় এবং সেগুলি তাঁর নাম সহ একাধিক পর্ন সাইটে আপলোড করে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ।

এবছর তাঁর মেলে সেইসব স্নানের ভিডিও, লিঙ্ক এবং নাম সহ ফুটেজটি পাঠান এক ব্যক্তি। তারপরই তিনি ঘটনাটি জানতে পারেন। মহিলার অভিযোগ, অভিযুক্ত পোস্টে নিজেকে মানসিক বিকারগ্রস্ত বলে উল্লেখ করে তাঁকে হুমকি ভরা মেল পাঠাতে থাকে। সে দাবি করে মহিলা সম্পর্কে সে সব কিছু জানে। তিনি হুমকিতে গুরুত্ব না দিলে তাঁর বন্ধু, সহকর্মী এবং আত্মীয়দের ভুয়ো মেল অ্যাড্রেস থেকে মহিলার নাম সহ স্নানের ফুটেজ পাঠিয়ে দেয় অভিযুক্ত। তারপর মহিলার কাছে অবিলম্বে ২০০০ মার্কিন ডলার এবং এক বছরের জন্য প্রতি মাসে ১০০০ মার্কিন ডলার দাবি করে।

এরপরই হিলটন ওয়ার্ল্ডওয়াইডের বিরুদ্ধে ১০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের ক্ষতিপূরণ দাবি করে কোম্পানিকে ১৯ পাতার আইনি চিঠি পাঠিয়েছেন মহিলা। চিঠিতে তাঁর অভিযোগ, ওই ঘটনার জন্য তিনি মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছেন। তাঁর কেরিয়ারে প্রভাব পড়েছে, ফলে তাঁর প্রচুর আর্থিক ক্ষতিও হয়েছে।

1 COMMENT

Comments are closed.