ইটানগর: অরুণাচল প্রদেশ ভারতের অবিচ্ছেদ্য অংশ৷ আরও একবার কড়া ভাষায় চিনকে মনে করিয়ে দিল ভারত৷ সেই সঙ্গে জানিয়েছে, দেশের যেকোনও প্রান্তের মতো অরুণাচল প্রদেশে যাওয়ার অধিকার রয়েছে ভারতের নেতাদের৷

শনিবার অরুণাচল প্রদেশ গিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী৷ তাঁর এই সফর নিয়ে আপত্তি জানিয়েছে চিন৷ সুর চড়িয়ে সেদেশের বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র অরুণাচলকে ‘বিতর্কিত জোন’ বলে মন্তব্য করে জানিয়েছেন, চিন-ভারত সীমান্তের প্রশ্নে চিনের অনস্থান স্পষ্ট৷ চিন কোনওদিনই অরুণাচল প্রদেশকে স্বীকৃতি দেয়নি৷ তাই চিন-ভারত সীমান্তের পূর্ব অংশে ভারতের নেতাদের সফরের তীব্র বিরোধীতা জানাচ্ছে৷ তাছাড়া সীমান্ত সমস্যা সমাধানের ক্ষেত্রে এই সফর মোটেই ইতিবাচক নয়৷

চিনা বিদেশমন্ত্রককে জবাব দিতে দেরি করেনি ভারতও৷ বেজিংয়ের মন্তব্যের কড়া প্রতিক্রিয়া দিয়েছে নয়াদিল্লি৷ বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র রবীশ কুমার জানিয়েছেন, অরুণাচল প্রদেশ ভারতের অবিচ্ছেদ্য অংশ৷ তাই ভারতের নেতারা মাঝেমধ্যেই অরুণাচল সফরে যান৷ যেমন তারা দেশের অন্য প্রান্তে যান৷ চিনকে বেশ কয়েকবার এই অবস্থানের কথা জানিয়ে দেওয়া হয়েছে৷

শনিবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী অরুণাচল প্রদেশ এসে মোট চার হাজার কোটি টাকার একাধিক প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন৷ জোর দেওয়া হয়েছে যোগাযোগ ব্যবস্থা ও বিদ্যুতের উপর৷ সড়র, রেল ও আকাশ তিনটি পথেই অরুণাচল প্রদেশের সঙ্গে দেশের অন্যান্য প্রান্তের যোগাযোগ আরও সুদৃঢ় করা হয়েছে৷ মোদীর অভিযোগ, আগের সরকারের আমলে এই তিনটি ক্ষেত্রে পিছিয়ে ছিল অরুণাচল৷