নয়াদিল্লি: অনুসন্ধান বা নজরদারি, পুলিশ, সেনা থেকে যে কোনও নিরাপত্তা সংস্থাগুলির কাছে বর্তমানে অতি-নির্ভরযোগ্য হাতিয়ার হল ‘ড্রোন’। যার পোশাকি নাম ‘আনম্যানড এরিয়াল ভেহিকল’ (ইউএভি)। কিন্তু বর্তমানে এই ড্রোনই পুলিশের মাথাব্যথার কারণ হয়ে উঠেছে। তাই আসন্ন প্রজাতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠানে অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে ড্রোনের উপর নজরদারি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র। আন্তঃরাজ্য সমন্বয় বৈঠকেই ড্রোনের উপর নজরদারি করার বিষয়ে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে বলে জানান দিল্লি পুলিশ কমিশনার বি এস বাস্সি।

জানা গিয়েছে, প্রজাতন্ত্র দিবসের নিরাপত্তা নিয়ে গত বৃহস্পতিবার আন্তঃরাজ্য সমন্বয় বৈঠক হয়। এই বৈঠকে ড্রোনের উপর নজর রাখতে আশেপাশের রাজ্যগুলিকে অনুরোধ করেন দিল্লির পুলিশ কমিশনার। তিনি বলেন, “নিরাপত্তায় বড় প্রশ্নচিহ্ন খাড়া করতে পারে এই ড্রোন। বিশেষত প্রজাতন্ত্র দিবসের দিন।’’ তাই পার্শ্ববর্তী রাজ্যগুলিকে ড্রোনের উপর নজরদারি করার অনুরোধের পাশাপাশি বাস্সি বলেন, “দিল্লি পুলিশও ড্রোনের উপর বিশেষ নজর রাখবে।’’ ইতিমধ্যে দিল্লির রাজপথে ২০০টি ডিজিটাল ক্যামেরা বসানো হয়েছে। তবে অবিলম্বে ড্রোনকে ‘নিষিদ্ধ’ করে আগাম সতর্কতা অবলম্বন করা উচিত বলেও মনে করেন বাস্সি।

প্রসঙ্গত, মাস তিনেক আগে দিল্লি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাছে একটি ইউএভি বা ড্রোনের দেখা মেলে। কিন্তু পুলিশ কোনও পদক্ষেপ গ্রহণ করার আগেই তা আচমকা উধাও হয়ে যায়। পরে ওই ড্রোনের মালিক বা হ্যান্ডলারের খোঁজ দিতে পারলে ১ লক্ষ টাকা পুরস্কার দেওয়া হবে বলে ঘোষণা করে দিল্লি পুলিশ। যদিও কোনও খবর মেলেনি।   

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।