মুম্বই: ভারতের বিরুদ্ধে সশস্ত্র সংঘাতে এলে যে তার ফল ভালো হবে না, এভাবেই পাকিস্তানকে সরাসরি হুঁশিয়ারি দিলেন কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং।

ভারতীয় সেনার শক্তিবৃদ্ধির কথার উল্লেখ করে তিনি বলেন, “পাকিস্তানের বোঝা উচিত যে আমাদের সরকারের দৃঢ় সংকল্প আছে। আমরা প্রয়োজনে এখন আরও বড় ধাক্কা দিতে পারি।” শনিবার নৌবাহিনীর কাজে যুক্ত হল ভারতের দ্বিতীয় স্করপিন-ক্লাস অ্যাটাক সাবমেরিন, সেই উদ্বোধনী অনুষ্ঠান থেকেই পাকিস্তানের উদ্দেশে হুঁশিয়ারি দেন রাজনাথ সিং।

রাষ্ট্রসংঘের জেনারেল অ্যাসেম্বলির বক্তব্যে যুদ্ধের হুঁশিয়ারি দিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। তিনি সেখানে কাশ্মীর প্রসঙ্গটি উত্থাপন করে ভারত-পাক দুটি পারমাণবিক-সশস্ত্র দেশ সক্রিয় হলে কী ফল হতে পারে তা উল্লেখ করে হুমকি দিয়েছিলেন।

তারপরই ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী যেন পাকিস্তানকে লক্ষ্য করে ওই হুঁশিয়ারি যেন পাক প্রধানমন্ত্রীকেই জবাব, এমনটাই মনে করা হচ্ছে।

খন্দেরি, ভারতের দ্বিতীয় স্কর্পিন সাবমেরিন উদ্বোধন করে রাজনাথ বলেন, “পাকিস্তানকে বুঝতে হবে যে ভারতীয় নৌবাহিনীতে আইএনএস খন্দেরি যুক্ত হওয়ায় এবার বাহিনী আরও অনেক বেশি শক্তিশালী হয়েছে। ওঁদের উচিত আমাদের ক্ষমতা জেনে নেওয়া এবং প্রয়োজনে আমরা যে সেগুলি ব্যবহার করতেও পারি তা বুঝে নেওয়া।”

“আমরা আমাদের নৌবাহিনীকে নিয়ে গর্বিত। একাত্তরে, নৌবাহিনী পাকিস্তানকে পরাস্ত করতে বিশাল ভূমিকা নিয়েছিল”, বলেন রাজনাথ সিং।

প্রসঙ্গত, বিদেশমন্ত্রকের দ্বারা কোণঠাসা হওয়ার পর শনিবার ইমরান খানের বিরুদ্ধে বিহারের মুজফরনগর আদালতে রাষ্ট্রসংঘের বক্তব্যে ‘উস্কানিমূলক’ ইঙ্গিত থাকায় মামলা দায়ের করা হয়।