লিডস: গ্রুপের তৃতীয় দল হিসেবে ইংল্যান্ড ও চতুর্থ দল হিসেবে সেমিফাইনাল নিশ্চিত ইংল্যান্ডের। কিন্তু প্রথম এবং দ্বিতীয় হিসেবে গ্রুপে শেষ করবে কে, তার জন্য অপেক্ষা আর কয়েকঘন্টার। গ্রুপের দ্বিতীয় স্থানাধিকারীর সঙ্গে তৃতীয় এবং প্রথম স্থানাধিকারীর সঙ্গে চতুর্থ স্থানাধিকারী অংশগ্রহণ করবে সেমিফাইনালের লড়াইয়ে। তাই শেষ চারের রুপরেখা তৈরিতে নির্ণায়ক হতে চলেছে শনিবাসরীয় জোড়া ম্যাচ। ম্যাঞ্চেস্টারের ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে যখন দক্ষিণ আফ্রিকার মুখোমুখি হতে চলেছে অস্ট্রেলিয়া, তখন লিডসে টিম ইন্ডিয়ার সামনে শ্রীলঙ্কা।

প্রথম দল হিসেবে সেমিফাইনালে পৌঁছনো অস্ট্রেলিয়া ৮ ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে আপাতত পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে। কিন্তু শনিবার ম্যাচের পর অস্ট্রেলিয়াকে টপকে লিগ শীর্ষে উঠে আসার সম্ভাবনা প্রবল ভারতের সামনে। সেক্ষেত্রে ৮ ম্যাচে ১৩ পয়েন্টে দাঁড়িয়ে থাকা ভারতকে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে জিততে তো হবেই, পাশাপাশি দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে হারতে হবে অস্ট্রেলিয়াকে। তাই আপাতদৃষ্টিতে নিয়মরক্ষার মনে হলেও শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ভারতের ম্যাচ খাতায়-কলমে শীর্ষে ওঠার লড়াই।

৮ ম্যাচে জয় ৬টি’তে, ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে হার এবং নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ম্যাচ বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত। ফর্মে থাকা কোহলিব্রিগেড শনিবাসরীয় লিডসে মুখোমুখি শ্রীলঙ্কার। সেমিফাইনালের রূপরেখা নির্ণয়ের পাশাপাশি আরও একটি গুরুত্ব রয়েছে এই ম্যাচের। নক-আউট পর্বের আগে শেষবারের মত এই ম্যাচে দলের মিডল অর্ডারকে দেখে নেওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন অধিনায়ক কোহলি ও দলের থিঙ্ক-ট্যাঙ্ক। হাতে পরীক্ষা-নিরীক্ষা সুযোগ থাকলেও উইনিং কম্বিনেশন ভাঙতে রাজি নয় ভারতীয় দল। সেক্ষেত্রে গত ম্যাচে ব্যর্থ হলেও নিজেকে ফের একবার প্রমাণের সুযোগ পাচ্ছেন দীনেশ কার্তিক।

নজর থাকবে অবশ্যই মহেন্দ্র সিং ধোনির দিকে। নিন্দুকদের মুখে কুলুপ সেঁটে ধোনির ব্যাটে পুরনো ঝলক দেখার অপেক্ষায় অনুরাগীরা। একইসঙ্গে সঙ্গাকারাকে ছাপিয়ে একটি বিশ্বকাপে সর্বাধিক শতরানের মালিক হওয়ার হাতছানি হিটম্যানের ঝুলিতে। এছাড়াও চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে বিশ্বকাপের একটি সংস্করণে ৬০০ রানের এলিট ক্লাবে এন্ট্রির সুযোগ থাকছে হিটম্যানের সামনে। এমনকি শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ১৩০ রান করতে পারলে সচিন তেন্ডুলকরকে ছাপিয়ে একটি বিশ্বকাপে সর্বাধিক রানের মালিক হওয়ারও সুযোগ থাকছে কোহলির ডেপুটির সামনে। তবে শুধু শ্রীলঙ্কা ম্যাচই নয়, নক-আউট পর্ব কিংবা দল ফাইনালে পৌঁছলে সেক্ষেত্রে আরও ২টি ম্যাচ হাতে থাকছে রোহিতের।

একনজরে দেখে নেওয়া যাক শনিবারের ম্যাচদু’টির উপর কিভাবে নির্ভর করছে সেমিফাইনালের রূপরেখা:
১. ভারত এবং অস্ট্রেলিয়া দু’দলই যদি শনিবারের ম্যাচ জেতে তবে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ শীর্ষে থেকে সেমিফাইনালে যাবে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া। সেক্ষেত্রে চতুর্থ স্থানাধিকারী হিসেবে শেষ চারে ওঠা নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে সেমিতে মুখোমুখি হবে তাঁরা। অন্যদিকে ১৫ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে শেষ করে ভারতীয় দল সেমিতে মুখোমুখি হবে তৃতীয় স্থানে থাকা ইংল্যান্ডের।

২. শনিবারের ম্যাচে অস্ট্রেলিয়া যদি জেতে এবং ভারত যদি শ্রীলঙ্কার কাছে হেরে যায় তবে উপরোক্ত রূপরেখার সঙ্গে কোনওরকম হেরফের ঘটবে না।

৩. কিন্তু শনিবারের ম্যাচ ভারত যদি জেতে এবং অস্ট্রেলিয়া হেরে যায় সেক্ষেত্রে ১৫ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ শীর্ষে শেষ করবে কোহলিব্রিগেড এবং মঙ্গলবার প্রথম সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডের মুখোমুখি হবে তাঁরা। অন্যদিকে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয়স্থানে শেষ করা অস্ট্রেলিয়া বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় সেমিফাইনালে মুখোমুখি হবে ইংল্যান্ডের।