নয়াদিল্লি: দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা পেরিয়ে গেল ৬ লক্ষ। মহারাষ্ট্র, তামিলনাডু, দিল্লিতে হু হু করে সংক্রমণের জেরেই লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমণ। বুধবার রাতের পরিসংখ্যান অনুযায়ী দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৬ লক্ষ ৩২ জন। যা কিনা রাশিয়ার থেকে মাত্র ৫০ হাজার পিছনে। উল্লেখ্য, আমেরিকা ও ব্রাজিলের পরেই তৃতীয় স্থানে নাম রয়েছে রাশিয়ার।

ভারতে মোট যত মানুষ করোনা আক্রান্ত হয়েছেন, তাঁর মধ্যে ৯০ শতাংশ সংক্রমণ হয়েছে মহারাষ্ট্র, তামিলনাড়ু, দিল্লি, গুজরাট, উত্তরপ্রদেশ, পশ্চিমবঙ্গ, তেলেঙ্গানা, অন্ধ্রপ্রদেশ, হরিয়ানা এবং কর্নাটক এই ১০ টি রাজ্য থেকে।

মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল জানিয়েছেন, দিল্লি করোনভাইরাসের বিস্তার কমিয়ে আনতে অনেকাংশে সফল হয়েছে। জুনে যেখানে দিল্লিতে আক্রান্তের সংখ্যা ১ লক্ষ হওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন বিশেষজ্ঞরা, সেখানে তা ৮৭,০০০ এ ঠেকেছে।

উল্লেখ্য, মার্চে দেশে করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে জারি করা হয়েছিল লকডাউন। জুনের শুরুতে লকডাউন শিথিল করতেই বেড়েছে সংক্রমণ। অন্যদিকে সোমবার, আনলক ২ ঘোষণা করে কেন্দ্রীয় সরকার, তবে লকডাউনের আওতায় রাখা হয়েছে কনটেইনমেন্ট জোনগুলিকে।

পাশপাশি এখনও দেশে বন্ধ রয়েছে লোকাল ট্রেন চলাচল। বন্ধ মেট্রো ও আন্তর্জাতিক বিমানও। বন্ধ স্কুল কলেজও।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ