লন্ডন: আবার বাড়ল প্রাচীনতম গ্র্যান্ড স্ল্যামের পুরস্কার মূল্য৷ ২০১৬ মরশুমে উইম্বলডনের মোট প্রাইজ মানি ছিল ২৮.১ মিলিয়ন পাউন্ড৷ গত বছর ১২.৫ শতাংশ বাড়িয়ে তা করা হয়েছিল ৩১.৬ মিলিয়ন পাউন্ড৷ এবছর ফের বাড়ানো হল টুর্নামেন্টের পুরস্কার মূল্য৷ ৭.৬ শতাংশ বাড়িয়ে দ্য চ্যাম্পিয়নশিপের সার্বিক প্রাইজ মানি করা হল ৩৪ মিলিয়ন পাউন্ড৷

গত বছর সিঙ্গলস চ্যাম্পিয়ন হওয়ার সুবাদে রজার ফেডেরার ও গার্বাইন মুগুরুসা পকেটে পুরেছিলেন ২.২ মিলিয়ন পাউন্ড করে৷ এবার সিঙ্গলস চ্যাম্পিয়নদের হাতে তুলে দেওয়া হবে ২.২৫ মিলিয়ন পাউন্ডের চেক৷

শুধু প্রাইজ মানি বাড়ানোই নয়, বেশ কিছু নতুন নিয়মও চালু করতে চলেছে আয়োজকরা৷ এবার থেকে চোট লুকিয়ে কোর্টে নামলে এবং মাঝ পথেই ম্যাচ ছেড়ে দিলে কাটা যাবে পুরস্কার মূল্য৷

প্রাইজ মানি নিয়ে ৫০-৫০ নিয়মও প্রণয়ন করা হতে চলেছে৷ ম্যাচ শুরুর ঠিক আগে কেউ লড়াই থেকে সরে দাঁড়ালে তিনি প্রথম রাউন্ডের ৫০ শতাংশ ম্যাচ ফি পাবেন৷ বাকি ৫০ শতাংশ পাবে লাকি লুজার হিসাবে মূল পর্বে যোগ দেওয়া তারকা৷

আসন্ন উইম্বলডনকে আরও পরিবেশ সচেতন ও সবুজ করে তুলতেও আগ্রহী অল ইংল্যান্ড ক্লাব৷ নিষিদ্ধ করা হচ্ছে প্লাস্টিকের স্ট্র৷ গত বছর প্রায় ৪ লক্ষ প্লাস্টিক স্ট্র ব্যবহৃত হয়েছিল টুর্নামেন্ট চলাকালীন৷ ব্যবহার করা হবে বৈদ্যুতিন যানবাহন৷ কোর্টের ঘাস সবুজ রাখতে আরও বেশি করে জল ব্যবহার করা হবে এবং দোকানগুলিতে কাগজের ঠোঙা ব্যবহার করা নিয়েও নিয়ম প্রণয়ন করা হচ্ছে৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।