কলকাতা: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বক্তব্যের জন্য আগেই আইনি নোটিশ দিয়েছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। রবিবার ভোট দেওয়ার পরও অভিষেক হুঁশিয়ারি দিয়ে বললেন, প্রয়োজনে কোর্টে টেনে নিয়ে যাবেন মোদীকে।

শনিবার মোদীর বিরুদ্ধে একটি আইনি নোটিশ দিয়েছেন তৃণমূল প্রার্থী অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর কেন্দ্র ডায়মন্ড হারবারে গিয়ে মোদী সরাসরি অভিযোগ তুলেছিলেন অভিষেকের বিরুদ্ধে। আর তার পরিপ্রেক্ষিতেই শেষদফার আগে মোদীকে নোটিশ পাঠান তিনি।

শেষ দফায় কলকাতায় নিজের বুথে গিয়ে ভোট দেওয়ার পর অভিষেক বলেন, ‘১৫ মে মোদী ডায়মন্ড হারবারে গিয়ে যা বলেছেন, তা প্রমাণ করতে হবে ওনাকে। যদি উপযুক্ত প্রমাণ দিতে না পারেন, তাহলে আমি ওনার বিরুদ্ধে ক্রিমিনাল কেস করব। ওনাকে কোর্টে নিয়ে যাব, যা করার তাই করব।’

মোদীর সব অভিযোগ মিথ্যা বলে দাবি করে অভিষেকের আইনজীবী বলেন, ‘আপনি আমার মক্কেলকে গুণ্ডা বলেছেন। আপনার পদে থেকে এই ধরনের কথা বলা উচিত নয়। আপনার সব দাবিকে চ্যালেঞ্জ জানাবে আমার মক্কেল।’

নোটিশে আরও বলা হয়েছে যে, মোদী অভিষেকের অফিস বন্ধ করে দেওয়ার হুমকি দিয়েছেন।

ডায়মন্ড হারবার কেন্দ্রের সুলতানপুরের সভায় মোদী বলেছিলেন, ”তোলাবাজি করে দিদি এত টাকা জমিয়েছেন, তবুও ভাইপো নিজের অফিসের জন্য রাস্তা দখল করেছে। অন্তত নিয়ম মেনে কাজ করুন। আসলে স্বভাব আর যায় কোথায়। এখানে তো দিদি আছেন। তাই যত খুশি লুঠে নাও।”

আর এই মন্তব্যেই ক্ষুব্ধ অভিষেক। তাঁর সম্পর্কে অপমানজনক মন্তব্য করা হয়েছে বলে অভিযোগ জানিয়েছেন তিনি। ৩৬ ঘণ্টার মধ্যে জবাব দিতে বলা হয়েছে। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, ৩৬ ঘণ্টার মধ্যে জবাব না পেলে আইনি পদক্ষেপ নেবেন তিনি।

তবে মুখ্যমন্ত্রী ও তাঁর ভাইপোকে নিয়ে মন্তব্য নতুন নয় মোদীর মুখে। একাধিকবার তিনি বলেছেন, ‘বুয়া-ভাতিজার হাত ধরে রাজ্য ভয়ঙ্কর পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু মানুষ তাঁদের জবাব দেবেন।’ মোদী বারবার অভিযোগ করেছেন, তৃণমূলের গুণ্ডাগিরি চলছে রাজ্য জুড়ে। মানুষের জীবন নরক পরিণত হয়েছে।