নয়াদিল্লি: ভারতীয় সেনাবাহিনীর জওয়ান ছিলেন স্বামী। শহিদ হন কাশ্মীরের কুপওয়াড়ায়। গত নভেম্বরে জঙ্গি নিকেশের উদ্দেশ তল্লাশি চালাতে গিয়ে শহিদ হন কর্নেল সন্তোষ মহাদিক। আর স্বামীকে সম্মান জানাতে এবার সেনাবাহিনীতে যোগ দিচ্ছেন তাঁর স্ত্রী স্বাতী। এসএসবি (Service Selection Board)-এর পরীক্ষায় সফলভাবে উত্তীর্ণও হয়েছেন তিনি। মাঝে শুধু ১১ মাসের ট্রেনিং। তারপরই স্বামীর পদাঙ্ক অনুসরণ করে সেনাবাহিনীর সদস্য হবেন তিনি।

স্বামীর শেষকৃত্যের সময়ই এই ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন স্বাতী। দুই সন্তানের মা স্বাতী মহাদিক শুধু মুখের কথাতেই শেষ করেননি। কাজেও করে দেখিয়েছেন। দুই সন্তানকে সামলেই চালিয়ে গিয়েছেন লড়াই। কেউ তাঁকে এই কাজে উৎসাহ দেননি। কিন্তু নিজের কাছে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ ছিলেন তিনি। শেষ পর্যন্ত জয়ী হয়েছেন স্বাতী। নিজের যোগ্যতায় সেনা অফিসারের পরীক্ষায় পাশ করেছেন তিনি। আপাতত চেন্নাইতে অফিসারর্স ট্রেনিং অ্যাকাডেমিতে ১১ মাসের ট্রেনিং নেবেন তিনি। এরপরই সদস্য হবে ভারতীয় সেনাবাহিনীর।

স্বাতী জানিয়েছেন, ‘না ছিল কোনও আবেগ, না আনন্দ, না দুঃখ। গত কয়েকমাস ধরে শুধুই চুপচাপ লড়াই চালিয়ে গিয়েছি। কেউ পাশে ছিল না।’ পুনে ইউনিভার্সিটি স্নাতক ডিগ্রি নিয়েছেন স্বাতী। শহিদের স্ত্রী হওয়ার জন্য শুধুমাত্র বয়সের ক্ষেত্রে কিছুটা ছাড় পেয়েছেন তিনি। কিন্তু লিখিত পরীক্ষায় পাশ করতে হয়েছে। উত্তীর্ণ হতে হয়েছে ফিটনেস টেস্টেও।

৪১ রাষ্ট্রীয় রাইফেলসের কমান্ডিং অফিসার ছিলেন সন্তোষ মহাদিক। লস্কর জঙ্গিদের তল্লাশি অভিযানে অংশ নিতে গিয়ে গুলি লেগে মৃত্যু হয় তাঁর।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV