স্টাফ রিপোর্টার, মালদহ: অবৈধ সম্পর্কের প্রতিবাদ করায় স্ত্রীর যৌনাঙ্গে বাঁশ ঢুকিয়ে খুনের অভিযোগ উঠল স্বামীর বিরুদ্ধে৷ খুনের পর প্রমাণ লোপাটের জন্য গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়৷

ঘটনাটি ঘটেছে মালদহর পুকুরিয়া থানার ছরকামারি গ্রামে৷ মৃতের নাম মিনু বিবি৷ ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত স্বামী গেদু শেখ পলাতক৷ ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুকুরিয়া থানার পুলিশ৷

আরও পড়ুন: ‘কালো চামড়ার পুরুষদের সঙ্গে সেক্স নয়’

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই গ্রামের বাসিন্দা গেদু শেখ পেশায় লরি চালক৷ বেশ কিছু দিন আগে তার সঙ্গে প্রতিবেশী সাহানুর বেওয়া নামে এক মহিলার অবৈধ সম্পর্ক তৈরি হয়৷ মিনু বিবি সম্পর্কের কথা জানতে পেরে তা মেনে নিতে পারেনি৷ জানাজানির পরই তাঁদের নিত্যদিনই বিবাদ লেগে থাকত৷

এমনকি মিনু বিবিকে প্রায় রোজই মারধর করত গেদু শেখ৷ বুধবার রাতে মিনু বিবির সঙ্গে স্বামী গেদু শেখের রোজকার মত বচসা বাঁধে৷ কিন্তু এদিন ঝগড়ার তুমুল হয়৷ মিনু বিবিকে বেধরক মারধর করে৷ এরপর তাঁর যৌনাঙ্গে বাঁশ ঢুকিয়ে খুন করে গেদু শেখ ও তার প্রেমিকা সাহানুর বেওয়া৷ প্রমাণ লোপাটের জন্য মিনুর মৃতদেহ ঘরে ফাঁস দিয়ে ঝুলিয়ে দেয়৷ এরপর থেকেই পলাতক অভিযুক্ত স্বামী গেদু শেখ৷

আরও পড়ুন: স্ত্রী ও মাকে মারধরের অভিযোগ প্রেমিকার পরিবারের বিরুদ্ধে

বৃহস্পতিবার সকালে বন্ধ ঘর থেকে রক্ত ভেসে আসতে দেখে স্থানীয় বাসিন্দারা৷ তাদের সন্দেহ হলে পুলিশে খবর দেয়৷ খবর দেওয়া হয় মিনু বিবির পরিবারকে৷ তাঁরা ও গ্রামবাসীরা একসঙ্গে মিলে পুকুরিয়া থানায় গেদু শেখের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে৷ পুলিশ অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনার তদন্তে নেমেছে৷