নয়াদিল্লি: ম্যাসেজিং অ্যাপ হোয়াটস অ্যাপকে সমন জারি করল সুপ্রিম কোর্ট। পাশাপাশি তথ্য প্রযুক্তি ও অর্থ দফতরকেও তলব করেছে দেশের সর্বোচ্চ আদালত। দেশে সবচেয়ে বড় ম্যাসেজিং অ্যাপ হোয়াটস্যাপের কেন কোনো অভিযোগ গ্রহণকারী নেই?  প্রশ্ন করল সুপ্রিম কোর্ট। চার সপ্তাহের মধ্যে সংশ্লিষ্ট সংস্থা ও মন্ত্রকের কাছে পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট চাইল শীর্ষ আদালত৷

সরকার ও ফেসবুক অধিকৃত হোয়াটস অ্যাপ আলোচনার মধ্যেই সুপ্রিম কোর্ট এই নোটিস জারি করল। প্রসঙ্গত গত সপ্তাহে তথ্য প্রযুক্তি ও আইন মন্ত্রী রবি শঙ্কর হোয়াটস্যাপের সিইও চেরিস ড্যানিয়েলসকে ডেকে পাঠান। ‘ফেক’ মেসেজ রুখতে হোয়াটস্যাপকে অভিযোগ গ্রহণকারী আধকারিক নিয়োগ করার কথা বলেন। পাশাপাশি ব্যবহারকারীদের ক্ষেত্রে কিছু সাধারণ তথ্য নথিভুক্ত রাখার নির্দেশও দেন তিনি। বিভিন্ন ভুল বা ক্ষতিকর মেসেজের ক্ষেত্রে সেগুলি বন্ধ করার জন্য কিছু প্রযুক্তিগত ব্যবস্থা তৈরির কথাও হোয়াটস্যাপকে জানায় প্রযুক্তি ও আইন মন্ত্রক।

পড়ুন:WhatsApp ব্যবহার করেন? তাহলে অবশ্যই পড়ুন

সূত্রের খবর, হোয়াটস্যাপ কর্তৃপক্ষ সরকারের এই দাবি মেনে ব্যাবহারকারীদের জন্য বিশেষ কিছু প্রাইভেসি সেটিংস রাখার কথা ভাবছে। হোয়াটস্যাপকে হাতিয়ার করে অপরাধপ্রবণতা ক্রমেই বেড়ে চলেছে। সাম্প্রতিককালের ‘মোমো’ চ্যালেঞ্জ সরকারের চিন্তা আরও বাড়িয়েছে। সেজন্যই এই পদক্ষেপ এমনটাই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।